spot_img
23 C
Dhaka

২৮শে জানুয়ারি, ২০২৩ইং, ১৪ই মাঘ, ১৪২৯বাংলা

সুইডেনে এরদোগানের কুশপুত্তলিকা পুড়ানোর তদন্ত শুরু

- Advertisement -

ডেস্ক রিপোর্ট, সুখবর ডটকম: তুর্কি ও সুইডেনের মধ্যকার সম্পর্কের টানাপোড়েনের মধ্যে গত শুক্রবার, একটি ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। জানা যায়, স্টকহামে কুর্দিরা রাষ্ট্রপতি রেসেপ তাইয়্যেপ এরদোগানের কুশপুত্তলিকা পুড়িয়েছে। আঙ্কারাকে শান্ত করার চেষ্টায়, সুইডিশ প্রধানমন্ত্রী উলফ ক্রিস্টারসন, এ কাজের জন্য কুর্দিদের নিন্দা করেন।

ক্রিস্টারসন বলেন, এরদোগানের বিরোধিতা করে জনগণ সুইডেনের ন্যাটোতে যোগদানের ব্যাপারে নিজেদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করছে।

তুর্কি সুইডেনের ভাগ্যকে তার মুঠোয় ধরে রেখেছে। নর্ডিক এই দেশটি গত বছর থেকে ন্যাটোতে নিজের জায়গা খুঁজছে। তবে এখনও পর্যন্ত, আঙ্কারা সুইডেনের আবেদন অনুমোদন করতে অস্বীকার করায় বিষয়টি খুব বেশি দূর এগিয়ে যেতে পারেনি।

এরদোগান কুর্দি সন্ত্রাসীদেরকে নিরাপদ আশ্রয় প্রদানের জন্য সুইডেনের বিরুদ্ধে কথা বলছেন।

গত বছর এরদোগান বলেন, “আমাদের দেশকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষা না হওয়া পর্যন্ত, আমরা আমাদের নীতিগত অবস্থান বজায় রাখব। সুইডেন এবং ফিনল্যান্ডের আমাদের দেশকে দেওয়া প্রতিশ্রুতিগুলো পূরণ হয়েছে কিনা তা আমরা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছি এবং অবশ্যই, চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আমাদের মহান সংসদের উপরই নির্ভর করবে।”

কয়েকদিন আগে ক্রিস্টারসন বলেন, সুইডেন ন্যাটো সদস্যপদের জন্য এরদোগানের কিছু দাবি মেনে নিতে পারছে না।

উল্লেখ্য, গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের পর সুইডেন পারমাণবিক অস্ত্রধারী জোটে যোগদানের প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত করে।

দেশটি গত মে মাসে তার আবেদন জমা দিয়েছে কিন্তু সদস্য হওয়ার জন্য ৩০ টি ন্যাটো মিত্র দেশকে অনুমোদনের নথিতে স্বাক্ষর করতে হবে। এখন পর্যন্ত, ৩০ টি দেশের মধ্যে ২৮ টি দেশ নথিতে স্বাক্ষর করেছে। শুধুমাত্র তুর্কি এবং হাঙ্গেরি এখনও স্বাক্ষর করেনি।

আইকেজে /

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ