spot_img
27 C
Dhaka

৬ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ইং, ২৩শে মাঘ, ১৪২৯বাংলা

সত্যিই কি ইউক্রেন সংঘাতের অবসান চান পুতিন?

- Advertisement -

ডেস্ক রিপোর্ট, সুখবর ডটকম: রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন গত বৃহস্পতিবার বলেছেন, রাশিয়া ইউক্রেনের সংঘাতের দ্রুত অবসান চায় এবং যত দ্রুত সম্ভব এ যুদ্ধ বন্ধ হওয়া উচিত।

পুতিন বলেন, “আমাদের উদ্দেশ্য হলো এই সংঘাতের অবসান ঘটানো। আমরা এর জন্য চেষ্টা করছি এবং চেষ্টা চালিয়ে যাব। এসব যত দ্রুত শেষ হবে ততই ভালো। ”

পুতিনের এ মন্তব্যটিকে ইউক্রেন ও তার মিত্র রাষ্ট্রগুলো সন্দেহের চোখে দেখছে।

হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জন কিরবি বলেন, ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনে শুরু হওয়া যুদ্ধের পরিসমাপ্তি ঘটানোর ব্যাপারে আলোচনার বিষয়ে কোনও ইঙ্গিতই দেন নি পুতিন।

তিনি আরো বলেন, পুতিন যতোই মুখে বলুন না কেন তিনি যুদ্ধের সমাপ্তি চান, তার কার্যক্রমে তা প্রকাশ পাচ্ছে না।

এদিকে রুশ প্রেসিডেন্ট জানান ইউক্রেনের সংঘাতের দ্রুত অবসানের জন্য কূটনৈতিক সমাধানের দিকে যাবেন তারা।

রাশিয়া ক্রমাগতই বলছে যে সে আলোচনা করতে চায়, কিন্তু ইউক্রেন এবং তার মিত্রশক্তিরা একে রাশিয়ার কোনও নতুন চক্রান্ত বলে মনে করছে।

পুতিন বলেন, “সব সশস্ত্র সংগ্রামের অবসান কূটনৈতিক আলোচনার মাধ্যমেই হয়। আমরা সবসময়ই আলোচনায় বসতে চেয়েছি। কিন্তু ইউক্রেন যতদিন পর্যন্ত না এ সত্য উপলব্ধি করে সমাধান চাইছে ততদিন পর্যন্ত এ যুদ্ধের অবসান সম্ভব নয়।”

এদিকে রাশিয়ার আগ্রাসনের পর প্রথমবারের মতো ওয়াশিংটন সফরে যান ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট, ভোলাদিমির জেলেনস্কি। তিনি সম্প্রতি ইউক্রেনে ফিরে এসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রদর্শিত সমর্থনে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন।

ইতিমধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৫০০ কোটি মার্কিন ডলারেরও উপরে অর্থ ইউক্রেনে পাঠিয়েছে। বৃহস্পতিবার এদেশ ইউক্রেনকে জরুরি ভিত্তিতে অর্থনৈতিক ও সামরিক সহযোগিতা প্রদানে আরো ৪৪৯ কোটি মার্কিন ডলারের অনুমোদন দিয়েছে।

আবার সামরিক সহায়তার জন্য ১৮.৫ কোটি মার্কিন ডলারের ঘোষণা দিয়েছে বাইডেন প্রশাসন।

জেলেন্সকি কংগ্রেসকে জানান ইউক্রেনের প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন গণতন্ত্রকেই সমর্থনের সামিল।

যদিও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এসব পদক্ষেপ সম্পর্কে পুতিন মোটেই ভীত নয়। বরং পুতিনের বক্তব্য হলো সব কঠোর প্রতিরোধের কোন না কোন ফাঁক থেকেই যায়, যা রাশিয়া খুঁজে বের করবেই।

তাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এইসব কার্যকলাপ অযথাই দ্বন্দ্বকে বাড়িয়ে দিচ্ছে।

আই. কে. জে/

 

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ