spot_img
24 C
Dhaka

১লা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ইং, ১৮ই মাঘ, ১৪২৯বাংলা

সর্বশেষ
***মায়ানমারের প্রতি কূটনৈতিক ও সামরিক সহযোগিতা বাড়িয়েছে চীন***ঐশ্বরিয়া, বিক্রম অভিনীত ‘পোন্নিয়িন সেলভান ২’ আসছে***ইসরায়েলের গুরুত্বপূর্ণ হাইফা বন্দর কিনে নিল আদানি গ্রুপ***নারীদের উপর বৈষম্য পাকিস্তানকে সাব-সাহারা দলভুক্ত করেছে***গোপালগঞ্জে ৫০ প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী পেলো স্কুল পোশাক***অনলাইন অধ্যয়নের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা সরিয়ে নিয়েছে চীন***নতুন বাজেট উন্নত ভারতের শক্তিশালী ভিত্তি তৈরি করবে : নরেন্দ্র মোদী***পেশোয়ারে মসজিদে বিস্ফোরণ: গোয়েন্দা প্রধানের অপসারণ দাবি পাকিস্তানিদের***২৬ জনকে চাকরি দেবে ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান***ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ দিচ্ছে আনোয়ার গ্রুপ

শ্রীপুরের গিলারচালা প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক পিতা-মাতা দিবস পালিত

- Advertisement -

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি, সুখবর ডটকম: একজন শিক্ষার্থী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আট ঘণ্টা লেখাপড়া করে স্কুলে। বাকি ১৬ ঘন্টা সে বাড়িতে থাকে। বিদ্যালয়ের চেয়ে শিক্ষার্থী বাড়িতে বেশি সময় পাচ্ছে। বাড়িতে শিক্ষার্থী খেলাধুলা, টিভি দেখা ও মোবাইল ফোন ইত্যাদি নিয়ে সময় ব্যয় করে। তাই প্রত্যেক শিক্ষার্থীর অভিভাবককে বাড়িতে পড়ার বিষয়ে জোর দিতে হবে। তাহলেই একজন শিক্ষার্থী তার শিক্ষাজীবনে সফল হতে পারবে।

গত ২২ ডিসেম্বর শ্রীপুরের (মাস্টারবাড়ী) গিলারচালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আয়োজনে স্কুল মাঠে বার্ষিক পিতা-মাতা দিবস অনুষ্ঠানে বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি প্রভাষক মফিজুল ইসলাম বুলবুল এসব কথা বলেন।

শ্রীপুরের গিলারচালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক পিতা-মাতা দিবস অনুষ্ঠান
শ্রীপুরের গিলারচালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক পিতা-মাতা দিবস অনুষ্ঠান

অভিভাবকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, কোনও অভিভাবক তার শিক্ষার্থী সন্তানের হাতে স্মার্টফোন দিবেন না। অধিকাংশ শিক্ষার্থী মোবাইল গেমে আসক্ত। তারা সারারাত গেম খেলার কারণে বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকে। সন্তানের কাছে স্মার্টফোন দিয়ে তার আগামী শিক্ষা জীবনের সফলতায় বাধা সৃষ্টি করে দিলেন। আপনারা সন্তানকে সময় দিন। বর্তমান সময়ে অভিভাবকেরা বাচ্চাদেরকে সঠিকভাবে সময় দেন না। বিদ্যালয় থেকে আপনার সন্তানকে কী পড়া দেয়া হয়েছে তার সাথে আলোচনা করুন। বিকেলে তার সাথে ঘুরতে যান ও খেলাধুলা করুন। দেখবেন আপনার সন্তানের মোবাইল আসক্তি অনেকটা কমে যাবে। অন্তত সপ্তাহে একদিন বিদ্যালয়ে এসে সকল স্যারদের সাথে কথা বলুন। আপনার সন্তান নিয়মিত বাড়ির কাজ করছে কিনা খোঁজ নিন।

জাতীয় নদী রক্ষা কমিটি শ্রীপুর উপজেলা শাখার সদস্য খোরশেদ আলমের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন শ্রীপুর পৌরসভার কাউন্সিলর রমিজ উদ্দিন আহমেদ, আলহাজ্ব ধনাই বেপারী মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবকে প্রধান শিক্ষক আব্দুল বাতেন, সুলতান উদ্দিন মেমোরিয়াল একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক সালাউদ্দিন আহমেদ মিলন, গাজীপুর জজ কোর্টের আইনজীবী হালিম উদ্দিন, গাজীপুর জেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য কাউসার শেখ কামাল, গাজীপুর জেলা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি কাউসার আকন্দ রিফাত, অভিভাবক জুনায়েদ আব্দু শাকুর, মজিবুর রহমান শেখ, ইব্রাহিম মোড়ল, অ্যডভোকেট খন্দকার আরিফুজ্জামান, রাশিদুল হাসান জয়, সহকারী শিক্ষক জেসমিন আক্তারসহ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছাত্র ও ছাত্রীবৃন্দ।

আই. কে. জে/

আরো পড়ুন:

বগুড়ায় শূন্য দুটি আসনের মনোনয়নপত্র তুললেন হিরো আলম

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ