Saturday, October 16, 2021
Saturday, October 16, 2021
danish
Home স্বাস্থ্য শিশুর দেহে প্রয়োগের অনুমোদন পেল কোভ্যাক্সিন

শিশুর দেহে প্রয়োগের অনুমোদন পেল কোভ্যাক্সিন

ডেস্ক রিপোর্ট, সুখবর ডটকম: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োগের অনুমোদন এখনো দেয়নি। কোভিডের মোকাবিলায় ভারতের এক’শ শতাংশ নিজস্ব প্রতিষেধক ‘কোভ্যাক্সিন’ অনুমোদন পায়নি অধিকাংশ পশ্চিমা দেশেরও। তবু হায়দরাবাদের ভারত বায়োটেকে তৈরি কোভ্যাক্সিন টিকা দেশের ২ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের এবার থেকে দেওয়া যাবে।

মঙ্গলবার ভারত বায়োটেককে এই ছাড়পত্র দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রের অধীনস্থ ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়া (ডিসিজিআই) এই অনুমোদন দিয়ে বলেছে, সংস্থার বিশেষজ্ঞ কমিটি শিশুদের প্রয়োগের ক্ষেত্রে এই টিকাকে সবুজ সংকেত দিয়েছে।

এত দিন ১২ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল একমাত্র জাইডাস ক্যাডিলাকে। গুজরাটের এই সংস্থা সেই অনুমোদন পেয়েছিল গত মাসে। জাইডাস ক্যাডিলার তৈরি প্রতিষেধক ‘জাইকভ-ডি’ ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের দেওয়ার অনুমোদন পেয়েছিল। সেই টিকা দেওয়ার কথা তিনটি করে। তুলনায় কোভ্যাক্সিন পেল ২ থেকে ১২ বয়সীদের জন্য অনুমোদন। ডোজের সংখ্যা দুই। শিশু ও কিশোরদের টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে কোভ্যাক্সিনই প্রথম অনুমোদন পেল।

ভারত বায়োটেক জানিয়েছে, এই টিকার দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষা শেষ হয়েছে গত সেপ্টেম্বর মাসে। অক্টোবরের প্রথম দিকে সেই পরীক্ষার ফল তারা ডিসিজিআইয়ের কাছে জমা দেয়। পরীক্ষা ও তার ফলের বিচার করে মঙ্গলবার তাদের এই অনুমোদন দেওয়া হয়।

কোভ্যাক্সিন এই অনুমোদন পেলেও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কিন্তু এখনো এই টিকাকে আন্তর্জাতিক ছাড়পত্র দেয়নি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এই টিকার দুটি ডোজ নিয়েছেন। তার সাম্প্রতিক যুক্তরাষ্ট্র সফরের সময় এই বিষয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। কোভ্যাক্সিনের দুটি ডোজ পাওয়া কেউ এখনো ইউরোপ ও আমেরিকায় বিনা বাধায় সফর করতে পারেন না। এই টিকা প্রাপকদের ওই সব দেশে বাধ্যতামূলক নিভৃতাবাসে থাকতে হবে। যুক্তরাজ্য ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে তৈরি ‘কোভিশিল্ড’কেও মান্যতা দেবে না জানিয়েছিল। এই টিকা নিয়ে সফর করা ভারতীয়দের ক্ষেত্রে তারা বিশেষ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। ভারত এর পাল্টা ব্যবস্থা নেওয়ায় যুক্তরাজ্য সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে। কিন্তু কোভ্যাক্সিন নিয়ে ‘ডব্লিউএইচও’ ছাড়াও অন্য বহু দেশের দোলাচল অব্যাহত। ভারত বায়োটেক জানিয়েছে, তারা কোভ্যাক্সিন সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য ‘ডব্লিউএইচও’র কাছে পাঠিয়েছে গত ৯ জুলাই। ডব্লিউএইচও আপাতত তা বিবেচনা করে দেখছে। বিশেষ করে বিবেচনা করছে শিশুদের ক্ষেত্রে এই টিকার কার্যকারিতা নিয়ে।

ভারতে কোভিডের দুটি ডোজ নিয়েছেন প্রায় ৩০ কোটি মানুষ। ৬০ কোটিরও বেশি পেয়েছেন একটি ডোজ। বর্তমানে সংক্রমণ যথেষ্ট নিয়ন্ত্রণে। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় সরকার শিশু ও কিশোরদের টিকা দেওয়ার কথা বিবেচনা করছে বলে জানিয়েছেন কোভিড টাস্ক ফোর্সের প্রধান এন কে অরোরা। রাজ্যে রাজ্যে স্কুল খোলার জন্য সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে। সরকারের তাগিদের অন্যতম প্রধান কারণও এটি। তৃতীয় ঢেউয়ে শিশুরা বেশি আক্রান্ত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সেই কারণে শিশুদের টিকাকরণের ওপর সরকার জোর দিচ্ছে বলে অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্সেস এর পরিচালক রণদ্বীপ গুলেরিয়া জানিয়েছেন।

আরো পড়ুন:

সিনোফার্ম-সিনোভ্যাক টিকার তৃতীয় ডোজ দিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সুপারিশ

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments