spot_img
27 C
Dhaka

২৬শে নভেম্বর, ২০২২ইং, ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

সর্বশেষ
***বিজয়ের মাসে ২টি প্রদর্শনী নিয়ে আসছে বাতিঘরের নাটক ‘ঊর্ণাজাল’***মহিলা আওয়ামী লীগের নতুন সভাপতি চুমকি, সাঃ সম্পাদক শবনম***সরকার নারীদের উন্নয়নে কাজ করে চলেছে : মহিলা আ. লীগের সম্মেলনে শেখ হাসিনা***তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া কোনো নির্বাচন হতে দেয়া হবে না : কুমিল্লায় মির্জা ফখরুল***দেশে আর ইভিএমে ভোট হতে দেওয়া হবে না : রুমিন ফারহানা***রংপুর সিটি নির্বাচনে অপ্রীতিকর কিছু ঘটলে ভোটগ্রহণ বন্ধ করে দেয়া হবে : নির্বাচন কমিশনার***সৌদি আরবে চলচ্চিত্র উৎসবে সম্মাননা পাচ্ছেন শাহরুখ খান***ভূমি অফিসে সরাসরি ঘুস গ্রহণের ভিডিও ভাইরাল***আজ মাঠে নামলেই ম্যারাডোনার যে রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলবেন মেসি***স্বাধীনতা কাপের সেমিফাইনালে শেখ রাসেল

লালমনিরহাটে কার্তিকের মঙ্গা জয়, ধানের ভালো ফলনে কৃষকের মুখে হাসি

- Advertisement -

নিজস্ব প্রতিবেদক, সুখবর বাংলা: দেশের উত্তরবঙ্গের জেলা লালমনিরহাটে কার্তিক মাসে যে মঙ্গা দেখা দিত তা উধাও হয়ে গেছে। কার্তিক মাসের শুরুতেরই গ্রামে গ্রামে আগাম আমন ধান কাটা শুরু হয়। শ্রমজীবি মানুষের কষ্টের দিন শেষ হয়েছে। ‘মরা কার্তিকে’ এখন পর্যাপ্ত কৃষি কাজের সৃষ্টি হয়েছে। শুরু হয়েছে ধানকাটা।

দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধিতে যখন নিম্ন আয়ের মানুষের নাভিশ্বাস উঠেছে তখনই আগাম ধান কৃষকের মুখে মঙ্গা জয়ের স্বপ্ন দেখাচ্ছে। ধান ঘরে তুলতে পেরে খুশি চাষিরা। ধানের ভালো ফলন ও দাম পেয়ে অনেকটা ক্ষতি পুষিয়ে উঠছেন তারা।

পুরুষের পাশাপাশি নারী শ্রমিকরাও মাঠে ও গৃহে সমান তালে কাজ করেন।

জানা যায়, চলতি মাসেই লালমনিরহাটের পাঁচ উপজেলায় আগাম জাতের আমন ধান কাটা ও মাড়াই শুরু হয়েছে। ধানের দাম ভালো থাকায় চাষিদের মনও উৎফুল্ল।

অপরদিকে মজুরি বেশি থাকায় কৃষি শ্রমিকরা রয়েছেন চাঙা। ধান কাটা ও মাড়াই করতে কৃষি শ্রমিক পাওয়াই দুষ্কর হয়ে পড়েছে। দিন হাজিরায় ৩০০ থেকে ৫০০ টাকা দিয়েও শ্রমিক পাওয়া যাচ্ছে না।

কৃষি অফিস জানায়, চলতি আমন মৌসুমে উত্তরাঞ্চলের রংপুর বিভাগের আট জেলায় ১২ লাখ ৮৬ হাজার ৪৯ হেক্টর জমিতে আমন চাষ হয়েছে। লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে উৎপাদন ধরা হয়েছে ৩৫ লাখ ৫৯ হাজার ৯৬৩ টন চাল। এর মধ্যে আগাম জাতসহ হাইব্রিড চাষ হয়েছে প্রায় ৭ লাখ হেক্টর জমিতে যা মোট আবাদি জমির ৪৩ শতাংশ।

বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতি মণ ধান বিক্রি হচ্ছে ৮০০ থেকে ১০০০ টাকা দরে। ধানের দাম পাওয়ায় কৃষকরা খুশি।

কৃষকরা জানান, এবার সারের মূল্য বৃদ্ধি ও সংকটের মধ্যেও ধান চাষ করেছি। গত বছর এক বিঘা জমির ধান কাটা ও মাড়াই করতে এক থেকে দেড় হাজার টাকা লেগেছে। এবার প্রায় তিন গুণ বেশি মজুরি দিতে হচ্ছে তবুও শ্রমিক সংকট। বর্তমানে ধানের দাম তুলনামূলক ভালো।

হাতীবান্ধা উপজেলার ফকির পাড়া ইউনিয়নের কৃষক আজিজ বলেন, ‘তিন বিঘা জমির ধান কাটা-মাড়াই শেষ হয়েছে। আগাম ধান পেয়ে এ কার্তিক মাসে মঙ্গা দূর হয়েছে।’

পাটগ্রাম উপজেলার জগতবের ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আলাউদ্দিন সুমন সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘পোকামাকড়ের আক্রমণ কম থাকায় ধানের ফলন ভালো হয়েছে। ধানের ভালো ফলন ও দাম পাওয়ায় কৃষকরা খুশি।’

লালমনিরহাট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক হামিদুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, গত বছরের তুলনায় এ বছর প্রচুর জমিতে চাষাবাদ হয়েছে। ধানের আশানুরূপ ফলন হয়েছে। এদিকে প্রতিকুল আবহাওয়ার মধ্যেও তেমন ক্ষতি হয়নি। এই কার্তিক মাসে আগাম ধান পেয়ে কৃষকরাও খুশি।

আরো পড়ুন:

রাজনীতিতে নাক গলানো পুলিশের কাজ না: ডিএমপি কমিশনার

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ