spot_img
27 C
Dhaka
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

৫ই অক্টোবর, ২০২২ইং, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯বাংলা

লন্ডন-নিউইয়র্কের পথে প্রধানমন্ত্রী

- Advertisement -

নিজস্ব প্রতিবেদক, সুখবর বাংলা: রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্যে অংশ নিতে যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের উদ্দেশে যাত্রা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রানির অন্তোস্টিক্রিয়া শেষে প্রধানমন্ত্রী নিউইয়র্কের উদ্দেশে যাত্রা করবেন। তিনি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৭তম অধিবেশনে যোগ দেবেন।

বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় তিনি ও তার সফরসঙ্গীরা রাজধানীর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ঢাকা ত্যাগ করেন। বাংলাদেশ বিমানের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট তাদের নিয়ে গেছে। স্থানীয় সময় বিকেল পৌনে ৫টার দিকে লন্ডন পৌঁছানোর কথা প্রধানমন্ত্রীর।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্র সফর সম্পর্কে অবহিত করেন। যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাদিয়া মুনা তাসনিম লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের অভ্যর্থনা জানাবেন।

১৬ সেপ্টেম্বর কমনওয়েলথ মহাসচিব প্যাট্রিসিয়া স্কটল্যান্ড প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তার অবস্থানকালীন হোটেলে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। পরে যুক্তরাজ্যের দক্ষিণ এশিয়া, উত্তর আফ্রিকা, জাতিসংঘ ও কমনওয়েলথ বিষয়ক মন্ত্রী লর্ড আহমদ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

১৭ সেপ্টেম্বর যুক্তরাজ্যের বিরোধীদলীয় এবং লেবার পার্টির নেতা স্যার কেইর স্টারমার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী ১৮ সেপ্টেম্বর বাকিংহাম প্যালেসে রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের সম্মানে রাজার এক সংবর্ধনায় যোগ দেবেন। ১৯ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওয়েস্টমিনিস্টার অ্যাবেতে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্যে অংশ নেবেন। একই দিন সন্ধ্যায় বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ ফ্লাইটে নিউইয়র্কের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর লন্ডন ত্যাগ করার কথা রয়েছে।

আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে প্রতিবারের মতো বাংলায় ভাষণ দেবেন। তিনি সংকট মোকাবিলায় একতরফা জবরদস্তিমূলক পদক্ষেপ কিংবা নিষেধাজ্ঞার মতো সিদ্ধান্ত না নিয়ে পারস্পরিক আলোচনার মাধ্যমে সমাধান এবং বহু পাক্ষিকতাবাদকে সর্বাধিক গুরুত্ব প্রদান করার ওপর জোর দেবেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছাড়াও শিক্ষামন্ত্রী, স্বাস্থ্যমন্ত্রী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হয়েছেন। ৪ অক্টোবর তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অন্যান্য অনুষ্ঠানে যোগদানের পাশাপাশি আগামী ২২ সেপ্টেম্বর উচ্চপর্যায়ের এক আলোচনাসভায় যোগ দেবেন। প্রধানমন্ত্রী প্রতিবারের মতো নিউ ইয়র্কে বেশ কয়েকটি দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে অংশগ্রহণ করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের আয়োজনে একটি গোলটেবিল বৈঠকে অংশগ্রহণ করবেন। প্রতি বছরের মতো এবারও, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশি প্রধানমন্ত্রীর সম্মানে একটি রিসেপশন আয়োজন করবেন। এছাড়াও, ওয়াশিংটন ডিসিতে অবস্থানকালে তিনি একাধিক বৈঠকে অংশ নিতে পারেন।

আরো পড়ুন:

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ