spot_img
33 C
Dhaka
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

৫ই অক্টোবর, ২০২২ইং, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯বাংলা

রোদে যাওয়ার আগে ও পরে কিছু সতকর্তা

- Advertisement -

ডেস্ক প্রতিবেদন, সুখবর বাংলা: সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি শুধু ত্বকেরই ক্ষতি করে না, চুলকেও নানাভাবে ড্যামেজ করে দেয়। হারায় চুলের জৌলুস। তাই রোদে যাওয়ার আগে ও পরে কিছু সতকর্তা মানা উচিত। পরামর্শ দিয়েছেন বিন্দিয়া বিউটি পার্লারের স্বত্বাধিকারী ও রূপ বিশেষজ্ঞ শারমিন কচি

ঘর থেকে বাইরে বেরোলেই রোদের তাপে অস্থির হতে হচ্ছে সবাইকে। হঠাৎ এক-আধটু বৃষ্টির দেখা হয়তো পাওয়া যায়। আবার পরক্ষণেই তেতে উঠে রোদ। তীব্র রোদে ক্ষতিগ্রস্ত হয় ত্বক ও চুল। রোদে পুড়ে কারো কারো চুল লালচে ও বিবর্ণ হয়ে পড়ে। রুক্ষতা ও ভঙ্গুরতা দেখা দেয়। চুল হয়ে পড়ে প্রাণহীন ও অনুজ্জ্বল। রোদে মাথার ত্বক ঘেমে বাইরের ধুলা-ময়লার সংমিশ্রণে চুলে জন্ম নেয় ময়লা ও খুশকি। বাজে চুলের বারোটা। সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি চুলের জন্যও ক্ষতিকর। এ জন্য রোদের এই সময়টাতে ভিন্নভাবে চুলের যত্ন নিতে হবে।

সানবার্ন প্রতিরোধ:

জোজোবা অয়েল, প্রোটিনসমৃদ্ধ ডিপ কন্ডিশনার রোদে পোড়া চুল রক্ষায় দারুণ সহায়ক। গরমের সময় ইউভি প্রটেক্টিভ কন্ডিশনার ব্যবহার করুন। গরমে চুলের ডগা ফেটে যাওয়া বা রোদে পোড়ার হাত থেকে রেহাই পেতে চুল ট্রিম করিয়ে নিতে পারেন। হেয়ার রিপেয়ারিং মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন। মোটকথা, রোদকে ভয় করা যাবে না। মোকাবেলা করতে হবে। বাইরে বেরোনোর আগে চুলে ইউভিএফসমৃদ্ধ সান প্রটেক্টর ক্রিম ব্যবহার করতে হবে। ৩০ বা তারও অধিক ইউভিএফ ক্ষমতাসম্পন্ন সান প্রটেক্টর ক্রিম চুলের সুরক্ষায় বেশি কাজ করে। রোদে গেলে চুল ঢেকে রাখার চেষ্টা করুন। এতে রোদ ও ধুলা-ময়লা থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে। রোদে গেলে ছাতা ব্যবহার করুন। ক্যাপ, ওড়না বা স্কার্ফও ব্যবহার করতে পারেন।

ব্লিচ ব্যবহার:

এ সময় সমুদ্রসৈকত বা পাহাড় ঘুরতে যাওয়ার আগে চুল রং করা যাবে না। ঘুরতে গিয়ে চুলে রোদ লাগানো যাবে না। রোদের অতিবেগুনি রশ্মি চুলে ব্লিচের মতোই ক্ষতিকর। রঙের ক্ষতিকর উপাদান চুলের মেলানিনের সঙ্গে মিশে যায়। এতে চুল আসল রং হারিয়ে অনুজ্জ্বল হয়ে পড়ে। ব্লিচ চুলের অত্যাবশ্যকীয় উপাদান প্রোটিনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। এর ফলে চুল রোদে আরো নাজুক হয়ে পড়ে।

পুষ্টিকর খাবার:

রোদ বাইরে থেকে চুলের ক্ষতি করে। এই ক্ষতিপূরণ ও রোদ মোকাবেলায় চুলের দরকার পর্যাপ্ত পুষ্টি। এ জন্য প্রতিদিন খাবার তালিকায় ফলমূল, শাক-সবজি রাখা জরুরি। রেইনবো ডায়েট অর্থাত্ রঙিন খাবারে পর্যাপ্ত অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট পাওয়া যায়, যা রোদে পোড়া চুলের ক্ষতি মোকাবেলা করে চুলকে আরো শক্তিশালী হতে সাহায্য করে।

শ্যাম্পু:

গরমে চুল পরিষ্কার করতে এক দিন পর পর শ্যাম্পু করতে হবে। মনে রাখবেন, ঘামে ভেজা চুলে ময়লা বেশি হয়। এ জন্য নিয়মিত এক দিন অন্তর শ্যাম্পু করা ভালো। শ্যাম্পু করার আগে চুল আঁচড়ে নিতে পারেন। এতে মরা কোষগুলো আলগা হয়ে দ্রুত উঠে আসবে। ঘরে তৈরি হারবাল প্যাকও ব্যবহার করতে পারেন। তবে চুলের ধরন অনুযায়ী শ্যাম্পু বাছাই করতে হবে। শুষ্ক, তৈলাক্ত, স্বাভাবিক এবং রং করা চুলের জন্য আলাদা শ্যাম্পু পাওয়া যায় বাজারে। এখান থেকে আপনারটি বেছে নিন। ব্যবহার করুন।

অ্যালোভেরার প্যাক:

গরমে মাথা ঠাণ্ডা এবং চুল ভালো রাখতে সাহায্য করবে অ্যালোভেরার প্যাক। অ্যালোভেরার রস, মেথি গুঁড়া ও ত্রিফলা (আমলকী, হরীতকী ও বহেড়া ভেজানো পানি) একসঙ্গে মিশিয়ে একটি প্যাক তৈরি করুন। এই প্যাক গোসলের আগে চুলে লাগিয়ে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে শ্যাম্পু করে ফেলুন। গরমে চুলের ক্ষতি কাটাতে সাহায্য করবে এই প্যাক।

রঙিন চুল:

অনেকেই শখের বসে চুলে রং করে। বিশেষ করে কম বয়সি তরুণ-তরুণীদের মধ্যে এই প্রবণতা বেশি দেখা যায়। এই বয়সীরাই বাইরে বেশি ঘোরাঘুরি করে। এতে রং করা চুল গরমে, ঘামে, কড়া রোদে সহজেই ক্ষতিগ্রস্ত হয়। রং হালকা হয়ে যায়। এ জন্য ইউভিএফসমৃদ্ধ হেয়ার ক্রিম, কন্ডিশনার, সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে। রং করা চুলের জন্য আলাদা শ্যাম্পু পাওয়া যায়। এই শ্যাম্পু ব্যবহার করতে হবে। মাসে একবার পার্লারে গিয়ে চুলে কন্ডিশনার ট্রিটমেন্ট করাতে হবে।

আরও পড়ুন:

প্রচণ্ড গরমে হিট স্ট্রোক থেকে বাঁচাবে ৫ পানীয়

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ