spot_img
27 C
Dhaka
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

৫ই অক্টোবর, ২০২২ইং, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯বাংলা

রেললাইনের গর্ত ভরাট করে ‘ক্ষুদে বীর’ অ্যাখ্যা পেল ৪ শিশু

- Advertisement -

ডেস্ক রিপোর্ট, সুখবর ডটকম: পাবনার চাটমোহরে রেললাইনের গর্ত ভরাট করে দুর্ঘটনা রোধ করা সেই চার শিশুকে সংবর্ধনা জানিয়েছে উপজেলা পরিষদ। সেই সঙ্গে তাদের ক্ষুদে বীর উপাধি দেয়া হয়েছে। সংবর্ধিত শিশুরা হলো- সুমন, মাসুম রানা, নিলয় হোসেন ও সিয়াম হোসেন। তারা সবাই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।
স্থানীয়রা জানান, গত ৬ জুন ঢাকা-রাজশাহী রেলপথের পাবনার চাটমোহরের গুয়াখড়া স্টেশনের পূর্ব পাশে শুকরভাঙ্গা এলাকায় রেললাইনের পাথর সরে যাওয়ায় বেশ বড় গর্তের সৃষ্টি হয়। এই পথে প্রতিদিন অসংখ্য ট্রেন চলাচল করায় যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা ছিল। রেললাইনের পাশেই বাড়ি ওই চার শিশুর। রাস্তার গর্তের বিষয়টি তাদের নজরে পড়লে সেখানে লাল পতাকা টানায় তারা।
পরে এই চার শিশু শুকরভাঙ্গা গ্রামের কুরবান আলীর ছেলে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র সুমন, আবু বক্কর সিদ্দিকীর ছেলে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র মাসুম রানা, বাবলু হোসেনের ছেলে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র নিলয় হোসেন ও শিবাখালী গ্রামের মক্কেল আলীর ছেলে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র সিয়াম হোসেন রেললাইনের পাত নিরাপদ করার ব্যবস্থা করে। তারা রেল লাইনের পাশ থেকে মাটি কেটে গর্ত ভরাট করে ও পাথর বিছিয়ে সমান করে দেয়। তাদের কাজ দেখে স্থানীয়রাও তাদের উৎসাহ দেন ও সহযোগিতা করেন।
তাদের এই উদ্যোগ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের একটি গ্রুপে প্রচার করা হলে তা চাটমোহর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদের নজরে আসে। তিনি শিশুদের উৎসাহিত করতে তাদের সংবর্ধনা দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন। সে মোতাবেক শনিবার (১২ জুন) তাদের সংবর্ধনা দেয়া হয়।
তাদের হাতে ক্রেস্ট, খেলার সামগ্রী ও তাদের অভিভাবকদের হাতে রেডক্রিসেন্টের ত্রাণ সামগ্রী তুলে দেয়া হয়। এ ছাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান তাদের ‘ক্ষুদে বীর’ আখ্যা দেন।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে চাটমোহর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ মাস্টার, জেলা পরিষদ সদস্য হেলাল উদ্দিন, ডা. গোলজার হোসেন, সাবেক চেয়ারম্যান আবুল কাশেম, চাটমোহর প্রেসক্লাব সভাপতি রকিবুর রহমান টুকুন, উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রবীর দত্ত চৈতন্য, ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি কেএম বেলাল হোসেন স্বপন, জিয়াউর রহমান টিটু, বাবলু হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক রাজীব কুমার বিশ্বাস রাজু প্রমুখ বক্তব্য দেন।

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ