spot_img
28 C
Dhaka
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

২রা অক্টোবর, ২০২২ইং, ১৭ই আশ্বিন, ১৪২৯বাংলা

রানিকে দেখতে বালমোরাল প্রাসাদে স্বজনরা

- Advertisement -

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, সুখবর বাংলা: যুক্তরাজ্যের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন চিকিৎসকরা। তাকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে বাকিংহাম প্যালেস।

বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) এ খবর পাওয়ার পরই রানিকে দেখতে বালমোরাল প্রাসাদে ছুটে যেতে শুরু করেছেন তার সন্তান-সন্ততিরা। তারা কেউ কেউ এরই মধ্যে প্রাসাদে পৌঁছেছেন। আবার কেউ কেউ রয়েছেন পথে।

বাকিংহাম প্যালেসের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘‘আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে বেশকিছু পরীক্ষার পর রানির চিকিৎসকরা তার স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন এবং তাকে চিকিৎসা তত্ত্বাবধানে রাখার পরামর্শ দিয়েছেন।

‘‘রানি বালমোরালে আছেন এবং সেখানে তার কোনও অসুবিধা হচ্ছে না” বলেও জানানো হয় বিবৃতিতে।

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের বয়স এখন ৯৬ বছর। এই সময়ে তার স্বাস্থ্য জটিলতা নিয়ে প্রাসাদ থেকে এমন বিবৃতি আসাটা উদ্বেগের বলেই জানিয়েছেন রাজকীয় লেখক রবার্ট হার্ডম্যান।

বিবিসি কে তিনি বলেন, প্রাসাদ থেকে সাধারণত রানির স্বাস্থ্য নিয়ে এমন বুলেটিন দেওয়া হয় না, যদি না সেটি গুরুতর হয়।

রানি কোভিড আক্রান্ত হওয়ার সময় কেবল সেটি জানানোর জন্য সর্বশেষ প্রাসাদ থেকে একটি বিবৃতি দেওয়া হয়েছিল বলে জানান তিনি।

রানির স্বাস্থ্য ভাল না যাওয়ায় বুধবার একটি অনলাইন বৈঠক পিছিয়ে দেওয়া হয়। তারপরই রানির স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বেগের এই খবর এল। বুধবারই চিকিৎসকরা রানির বিশ্রামের প্রয়োজন বলে পরামর্শ দিয়েছিলেন।

রানির শরীর ভালো নেই এমন খবর ছড়িয়ে পড়ার পর সদ্য প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করা লিজ ট্রাস থেকে শুরু করে যুক্তরাজ্যের আরো বেশ কয়েকজন নেতা রানির দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠার প্রার্থনা করেছেন।

গত মঙ্গলবার রানির সঙ্গে দেখা করে আনুষ্ঠানিকভাবে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীর ‍দায়িত্ব গ্রহণ করেন ট্রাস। সাধারণত এ অনুষ্ঠান লন্ডনের বাকিংহাম প্যালেসে হয়। কিন্তু এবার রানি সেখানে যাননি। ট্রাস স্কটল্যান্ডের বালমোরালে গিয়ে রানির কাছে সরকার গঠনের অনুমতি নিয়েছেন।

এক টুইটে ট্রাস লেখেন, ‘‘আমার প্রার্থনা এবং যুক্তরাজ্যের সব মানুষের প্রার্থনা এই সময়ে রানি এবং তার পরিবারের সঙ্গে আছে।”

The whole country will be deeply concerned by the news from Buckingham Palace this lunchtime.

My thoughts – and the thoughts of people across our United Kingdom – are with Her Majesty The Queen and her family at this time.

— Liz Truss (@trussliz) September 8, 2022

লেবার নেতা কেয়ার স্টারমার এক টুইটে ‘গভীর উদ্বেগ’ প্রকাশ করেছেন।

Along with the rest of the country, I am deeply worried by the news from Buckingham Palace this afternoon.

My thoughts are with Her Majesty The Queen and her family at this time, and I join everyone across the United Kingdom in hoping for her recovery.

— Keir Starmer (@Keir_Starmer) September 8, 2022

স্কটল্যান্ডের ফার্স্ট মিনিস্টার নিকোলা সার্জেন লিখেছেন, তিনি ‘গভীরভাবে উদ্বিগ্ন’ এবং তিনি রানির প্রতি তার ‘প্রার্থনা ও শুভকামনা’ পাঠিয়েছেন।

All of us are feeling profoundly concerned at reports of Her Majesty’s health.

My thoughts and wishes are with the Queen and all of the Royal Family at this time.

— Nicola Sturgeon (@NicolaSturgeon) September 8, 2022

এবছরই রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের ব্রিটিশ সিংহাসনে আরোহণের ৭০ বছর উদযাপিত হয়েছে। রানি বর্তমানে গ্রীষ্মকালীন বিশ্রাম নিচ্ছেন এবং গত জুলাই মাস থেকে স্কটল্যান্ডের বারমোরাল প্রাসাদে অবস্থান করছেন।

রানির সঙ্গে দেখা করতে এরইমধ্যে ব্রিটিশ যুবরাজ প্রিন্স চার্লস এবং ক্যামিলা স্কটল্যান্ডের বালমোরাল প্রাসাদে পৌছেঁছেন।

আরো পড়ুন:

যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নিলেন লিজ ট্রাস

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ