spot_img
26 C
Dhaka

৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ইং, ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

সর্বশেষ

মালয়েশিয়াকে ৪১ রানে গুটিয়ে দাপুটে জয় বাংলাদেশের

- Advertisement -

ক্রীড়া ডেস্ক, সুখবর বাংলা: মালয়েশিয়াকে ৪১ রানে গুঁড়িয়ে দিয়ে বাংলাদেশ জয়ে ফিরলো। নারী এশিয়া কাপে তারা দ্বিতীয় জয়ের দেখা পেলো ৮৮ রানে।

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের মূল মাঠে টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের। ৫ উইকেটে ১২৯ রানের সংগ্রহের পথে সর্বোচ্চ ৫৬ রান মুর্শিদার ব্যাটে, তবে ৫৩ রান করা জ্যোতি খেলেছেন দ্রুত গতিতে।

বল হাতে আরও দাপুটে বাংলাদেশ, মালয়েশিয়াকে গুটিয়ে দিয়েছে মাত্র ৪১ রানে। দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেনি কোনো ব্যাটারই।

৮৮ রানের জয়টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি রানের বিচারে বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের জয়। সর্বোচ্চ ব্যবধানের জয় হিসেবে এখনো সবার উপরে মালদ্বীপের বিপক্ষে ২৪৯ রানের জয়টি।

ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম বলেই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ওপেনার শামীমা সুলতানা (০) আরেক দফা হলেন ব্যর্থ। এরপর আরেক ওপেনার ফারজানা হক পিংকি ও মুর্শিদা খাতুন জুটিতে যোগ করেন ৩৪ রান।

নবম ওভারে অবশ্য ২৪ বলে ১০ রান করে ফেরেন ফারজানাও। সেখান থেকে অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতিকে নিয়ে মুর্শিদা দলকে টেনে নেন। জুটিতে আরও উঠেছে খানিক দ্রুত গতিতে।

১৬তম ওভারের তৃতীয় বলে মুর্শিদা ছুঁয়েছেন ফিফটি, ৪৭ বলে ৬ চারের সাহায্যে। একই সাথে জুটিরও ফিফটি হয়, লেগেছে ৪৩ বল।

পরের ওভারে অবশ্য চড়াও হন অধিনায়ক জ্যোতিও। ওভারে এক ছক্কার সাথে দুই চার, রান আসে ১৮। এরপর সময় যত গড়িয়েছে জ্যোতি শুধু দ্যুতি ছড়িয়েছেন। সুযোগ পেলেই হাঁকিয়েছেন বাউন্ডারি।

১৯তম ওভারের প্রথম বলে দারুণ এক সুইপ শটে চার মেরে ৩২ বলে ফিফটি ছুঁয়েছেন জ্যোতি। তবে ফিরেছেনও একই ওভারে, নামের পাশে ৩৪ বলে ৬ চার ১ ছক্কায় ৫৩ রান। তার বিদায়ে ভাঙে ৬২ বলে ৮৭ রানের জুটি। রান আউটে এক বলের ব্যবধানে ফেরেন তার সঙ্গী মুর্শিদাও। ৫৪ বলে ৫৬ রানের ইনিংসটি তিনি সাজান ৬ চারে।

শেষ পর্যন্ত ৫ উইকেটে ১২৯ রানে থামে বাংলাদেশ। শেষ ৫ ওভারে টাইগ্রেসরা তোলে ৫২ রান।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে বেশ ধীর গতির শুরু মালয়েশিয়ার। টাইগ্রেসদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ৫ ওভারে বিনা উইকেটে ১২ রান তুলতে পারে দলটি। তবে ৬ষ্ঠ ওভারে এসে অভিষিক্ত ফারিহা ইসলাম তৃষ্ণা দেখালেন ঝলক, গড়লেন হ্যাটট্রিকের কীর্তি।

ওভারের দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ বলে উইকেট নেন তৃষ্ণা। তার শিকার হয়েছেন উইনফ্রেড দুরাইসিঙ্গাম (৫), ম্যাস এলিসা (০) ও মাহিরাহ ইসমাইল (০)। বাঁহাতি এই পেসার তিনজনকেই করেছেন বোল্ড।

১৩ রানে ৩ উইকেট হারানো মালয়েশিয়ান মেয়ারা আর স্বস্তিতে থাকতে পারেনি। নিয়মিত বিরতিতে হারিয়েছে উইকেট। তৃষ্ণার সাথে ফাহিমা খাতুন,সানজিদা আক্তার মেঘলা ও রুমানা আহমেদরা যোগ দিলে ৪১ রানেই অলআউট হতে হয়।

১২ রানের তৃষ্ণার ৩ উইকেট, ফাহিমা, সানজিদা ও রুমানা নেন ২ টি করে উইকেট।

ওআ/

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ