spot_img
27 C
Dhaka

২৯শে নভেম্বর, ২০২২ইং, ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

সর্বশেষ
***যৌনপল্লীর গল্প নিয়ে পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমা ‘রঙবাজার’***কেন ক্ষমা চাইলেন কিংবদন্তি গায়ক বব ডিলান***বিলুপ্তপ্রায় কুমিরের সন্ধান, পুনর্ভবা নদীর তীরে মানুষের ভিড়***সোহরাওয়ার্দী উদ্যান নয়, নয়াপল্টনেই হবে সমাবেশ : বিএনপি***পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসী দল টিটিপি ইসলামাবাদের গলার কাঁটা?***পাকিস্তান-আফগানিস্তানের সম্পর্ক কি শেষের পথে?***শীত মৌসুম, তুষার এবং বরফকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে রাশিয়া : ন্যাটো***নানা সুবিধাসহ বাংলাদেশ ফাইন্যান্সে চাকরির সুযোগ***বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার সূচি ও আসনবিন্যাস প্রকাশ***পৃথিবীর কিছু অবিশ্বাস্য সৃষ্টি, যা আপনার কাছে খুবই আশ্চর্যজনক লাগবে

ভারত সবসময় গ্লোবাল সাউথের পাশে থাকবে : জাতিসংঘ দিবসে জয়শঙ্কর

- Advertisement -

ডেস্ক প্রতিবেদন, সুখবর বাংলা: ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ২৪ অক্টোবর জাতিসংঘের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর স্মারক দিবসে বলেন, “ভারত সবসময় গ্লোবাল সাউথের সাথেই আছে। ভারত চেষ্টা করবে জাতিসংঘের কার্যকারিতা আরো জোরদার করার।”

“ইউএনএসসি-এর সদস্য হিসেবে ভারতের কার্যকলাপ প্রমাণ করে দেয় সমসাময়িক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় এবং কূটনীতি প্রচারের ক্ষেত্রে আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি আসলে কেমন। ভারত সর্বদা গ্লোবাল সাউথের পাশে দাঁড়াবে এবং জাতিসংঘের কার্যকারিতা জোরদার করার চেষ্টা করবে”।

“সংস্কারকৃত বহুপাক্ষিকতাবাদ, আইনের শাসন এবং একটি ন্যায্য ও ন্যায়সঙ্গত আন্তর্জাতিক ব্যবস্থা স্থাপনের আমাদের ইচ্ছা ও উদ্দেশ্য মূলত জাতিসংঘের অব্যাহত প্রাসঙ্গিকতা নিশ্চিত করার জন্যেই”।

জাতিসংঘের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য হিসেবে, ভারত তার উদ্দেশ্য ও নীতির প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। “সনদের লক্ষ্য বাস্তবায়নে আমাদের অবদান এই অঙ্গীকারেরই প্রতিফলন।”

গত মাসে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর তার ১১দিনের মার্কিন সফরের সময়, ভারতের মূল স্বার্থ লঙ্ঘনের পাশাপাশি আসন্ন জাতিসংঘের সংস্কারসহ বিশ্বব্যাপী উদ্বেগ ও চাপের বিভিন্ন বিষয়গুলিকে তুলে ধরেন। তিনি ওয়াশিংটনে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “আমি মনে করি জাতিসংঘের সদস্যদের সম্মিলিতভাবে চেষ্টা করতে হবে। আমরা সংস্কারের জন্য চাপ প্রয়োগ করছি।”

২৪ অক্টোবর, জাতিসংঘ দিবস। ১৯৪৫ সালের এই দিনে জাতিসংঘ সনদ কার্যকর হওয়ার মাধ্যমে জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠা লাভ করে। অর্থাৎ ২৪ অক্টোবর হলো জাতিসংঘের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। এই দিনে নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ স্থায়ী সদস্যসহ বেশিরভাগ স্বাক্ষরকারীদের দ্বারা স্বাক্ষরিত জাতিসংঘ সনদ অনুমোদন লাভ করে এবং জাতিসংঘ আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিষ্ঠিত হয়।

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ