spot_img
31 C
Dhaka
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ইং, ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৯বাংলা

সর্বশেষ

জি-২০ সম্মেলনে আমন্ত্রণ পাচ্ছে বাংলাদেশ

- Advertisement -

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, সুখবর বাংলা: চলতি বছর ডিসেম্বরে বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ শিল্পোন্নত ২০ দেশের জোট ‘জি-২০’ এর সভাপতির দায়িত্ব পাচ্ছে ভারত। আগামী বছর ভারতে অনুষ্ঠিত এই জোটের সম্মেলনে অতিথি হিসেবে আমন্ত্রণ পাচ্ছে বাংলাদেশ।

বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশানে, সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় অনুষ্ঠানে এমনটি জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের বিদায়ী হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ ও ভারত কানেক্টিভিটি বাড়াতে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে। আঞ্চলিক কানেক্টিভিটি বাড়লে এই অঞ্চলের সব দেশেরই অর্থনৈতিক অগ্রগতি হবে।

হাইকমিশনার বলেন, ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বরে জি-২০ সম্মেলন হতে যাচ্ছে ভারতে।

তার আগে জোটের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পাচ্ছে ভারত। চেয়ারম্যান হিসেবে ভারত তার বন্ধু ও প্রতিবেশী দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে অতিথি হিসেবে অংশ নিতে আমন্ত্রণ জানাচ্ছে। বাংলাদেশের এই অংশগ্রহণ অনেক ক্ষেত্রে ইতিবাচক হিসেবে কাজ করবে।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক ভারত সফরের কিছু অগ্রগতি তুলে ধরেন তিনি। কুশিয়ারা নদীর পানিবণ্টন সংক্রান্ত চুক্তি, ব্যাপক অর্থনৈতিক অংশীদারত্ব চুক্তি (সেপা) করতে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা, বাণিজ্য ও যোগাযোগ সংক্রান্ত বেশকিছু সমঝোতা স্মারকের কথা তুলে ধরে হাইকমিশনার প্রধানমন্ত্রীর সফরকে ‘ফলপ্রসূ’ বলে উল্লেখ করেন।

দোরাইস্বামী বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দূরদর্শী নেতৃত্বে দুই দেশ দ্বিপাক্ষিক সব বিষয় সমাধানে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করছে।

দীর্ঘ ১২ বছর পর যৌথ নদী কমিশনের (জেআরসি) বৈঠক হওয়ার কথা উল্লেখ করে হাইকমিশনার বলেন, আঞ্চলিক, অর্থনৈতিক, সড়ক ও রেলের যোগাযোগের উন্নয়ন অংশীদার হিসেবে ভারত সবসময় বাংলাদেশের পাশে থাকবে।

অন্যদিকে, ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বুধবার এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, জি২০ সভাপতি হিসেবে ভারত আগামী ডিসেম্বর থেকে সারাদেশে ২০০টিরও বেশি বৈঠক আয়োজন করবে। জি২০র রাষ্ট্রপ্রধান বা সরকারপ্রধান পর্যায়ে সম্মেলন আগামী বছরের ৯ ও ১০ সেপ্টেম্বর নয়াদিল্লিতে অনুষ্ঠিত হবে।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, জি২০ এর বৈঠক ও শীর্ষ সম্মেলনে কিছু অতিথি দেশ ও আন্তর্জাতিক সংস্থাকে আমন্ত্রণ জানানোর ঐতিহ্য আছে। অতিথি দেশ হিসেবে বাংলাদেশ, মিশর, মরিশাস, নেদারল্যান্ডস, নাইজেরিয়া, ওমান, সিঙ্গাপুর, স্পেন এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতকে আমন্ত্রণ জানাবে ভারত।

আর্জেন্টিনা, অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, চীন, ফ্রান্স, জার্মানি, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, ইতালি, জাপান, কোরিয়া প্রজাতন্ত্র, মেক্সিকো, রাশিয়া, সৌদি আরব, দক্ষিণ আফ্রিকা, তুরস্ক, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন নিয়ে জি২০ গঠিত।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আরো বলেছে, পরিবেশের জন্য জীবনধারা, নারীর ক্ষমতায়ন, স্বাস্থ্য, কৃষি ও শিক্ষা থেকে শুরু করে বাণিজ্য, দক্ষতা, সংস্কৃতি ও পর্যটন পর্যন্ত ডিজিটাল পাবলিক অবকাঠামো এবং প্রযুক্তি-সক্ষম উন্নয়ন ।

জলবায়ু অর্থায়ন, বৃত্তাকার অর্থনীতি, বিশ্বব্যাপী খাদ্য নিরাপত্তা, জ্বালানি নিরাপত্তা, সবুজ হাইড্রোজেন, দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাস ও স্থিতিস্থাপকতা উন্নয়নমূলক সহযোগিতা, অর্থনৈতিক অপরাধের বিরুদ্ধে যুদ্ধ এবং বহুপাক্ষিক সংস্কারকে ভারত অগ্রাধিকার দেবে ।

আরো পড়ুন:

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় গোটা কোম্পানি দান ব্যবসায়ীর

 

 

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ