spot_img
31 C
Dhaka
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

৭ই অক্টোবর, ২০২২ইং, ২২শে আশ্বিন, ১৪২৯বাংলা

সর্বশেষ

ব্রুনাই থেকে জ্বালানি তেল আমদানির উদ্যোগ

- Advertisement -

নিজস্ব প্রতিবেদক, সুখবর বাংলা: দ্বীপরাষ্ট্র ব্রুনাই থেকে জ্বালানি তেল আমদানির প্রক্রিয়া চলমান বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন। দেশটির সুলতান হাজি হাসান আল বলকিয়ার ঢাকা সফরের আগে ব্রুনাইয়ে বসছে সচিব পর্যায়ের বৈঠক। জ্বালানি বিশেষজ্ঞদের মতে, এশিয়ার এই দেশটি সংকট উত্তরণের জুতসই বিকল্প হতে পারে।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে জ্বালানি সংকটে ধুঁকছে পুরো বিশ্ব। অবস্থার উন্নতির আশ্বাস বা লক্ষণ মিললেও এখনো সংকটে উন্নত দেশ ছাড়া প্রায় সব রাষ্ট্র। যার পরিপ্রেক্ষিতে দেশে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি ও ব্যবহারে কাঁটছাট আনায় স্বাভাবিক প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। প্রথাগত বাজারের বাইরে গিয়ে ডিজেল সংগ্রহের চেষ্টা করছে সরকার। সাড়া মিলেছে দক্ষিণ চীন সাগরে ঘেরা বোর্নিয়ো দ্বীপের জ্বালানি সমৃদ্ধ ছোট্ট দেশ ব্রুনাইয়ের কাছ থেকে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৯ সালের এপ্রিলে সফর করেন দেশটি। তারই ফিরতি সফর হিসেবে ঢাকায় আসার কথা রয়েছে ব্রুনাই সুলতান হাজি হাসান আল বলকিয়ার। এ সফরকে কেন্দ্র করে জ্বালানি আমদানি, শ্রমশক্তি রফতানিসহ ৩ থেকে ৪টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের প্রস্তুতি চলছে দুদেশের। আলোচনায় থাকছে দ্বিপক্ষীয় নৌবাণিজ্য, বিনিয়োগ, শিক্ষা, সংস্কৃতি, প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বিষয়ও।

৩১ আগস্ট ব্রুনাইয়ে সচিব পর্যায়ের বৈঠকে যোগ দিতে যাচ্ছেন মাসুদ বিন মোমেন। পররাষ্ট্রসচিব জানান, তারিখ নির্ধারিত না হলেও অক্টোবরের মাঝামাঝি ঢাকা সফরে আসতে পারেন ব্রুনাই সুলতান। ডিজেল আমদানির বিষয়ে আলোচনা চলছে দুদেশের মধ্যে।

পররাষ্ট্রসচিব বলেন, ‘আন্তর্জাতিকভাবে জ্বালানির একটা সংকট তৈরি হয়েছে। তাই আমরা চাইব, ব্রুনাই এ ক্ষেত্রে আমাদের কোনো সহযোগিতা করতে পারে কি না। এখন আমাদের বেশি চাহিদা ডিজেল। তাই ডিজেলের বিষয়ে সহযোগিতা পাওয়া যায় কি না, সেটা দেখব।’

প্রচলিত উৎসের বাইরে গিয়ে এশিয়ার একটি দেশ থেকে ডিজেলের মতো জ্বালানি আমদানির উদ্যোগকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।

জ্বালানি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক বদরুল ইমাম বলেন, ‘কিছুদিন পর ব্রুনাইয়ের সুলতান ঢাকায় আসবেন। তখন যদি সরকারি সর্বোচ্চ পর্যায়ে এ প্রস্তাবটা তাকে দেয়া হয়, আমার মনে হয় যে ব্রুনাই এটাকে ইতিবাচকভাবেই নেবে। সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সংকট কিছুটা হলেও কমবে বলে আশা করি।’

২০১৮ সালের ৯ সেপ্টেম্বর প্রথম ঢাকা-ব্রুনাই সচিব পর্যায়ের বৈঠক হয়। এ দ্বীপরাষ্ট্রটিতে বর্তমানে প্রায় ১৫ হাজারের মতো বাংলাদেশি অভিবাসী রয়েছেন।

আরো পড়ুন:

শপথ নিলেন নতুন ডেপুটি স্পিকার 

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ