spot_img
20 C
Dhaka

৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২২ইং, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

বর্ষপূর্তিতে চার সিনেমা নির্মাণের ঘোষণা স্টার সিনেপ্লেক্সের

- Advertisement -

বিনোদন ডেস্ক, সুখবর বাংলা: মকালো আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো স্টার সিনেপ্লেক্সের ১৮ বছর পূর্তি অনুষ্ঠান। শনিবার (৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় এই অনুষ্ঠানে এসে চার সিনেমা নির্মাণের ঘোষণা দিলেন স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান।

এর আগে প্রতিষ্ঠানটি ‘ন ডরাই’ নামে একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছিল। সার্ফিং নিয়ে দেশের প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি দর্শক মুগ্ধতা পেরিয়ে জিতে নেয় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের ছয়টি শ্রেষ্ঠত্বের স্বীকৃতি।

শনিবার সন্ধ্যায় এসকেএস টাওয়ার (মহাখালী) শাখায় আয়োজিত বর্ণাঢ্য জন্মোৎসবে স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান বলেন, ‌“বাংলা সিনেমায় এখন নতুন হাওয়া বইছে। এতে আমরা খুবই আনন্দিত। মনে পড়ে ২০১৮ সালের কথা। তখন আমরা খুব হতাশ হয়ে পড়েছিলাম। কারণ, আমাদের মতো করে বাংলা সিনেমা পাচ্ছিলাম না। সেই হতাশা থেকেই ‘ন ডরাই’ ছবিটি নির্মাণ করেছি এবং দারুণভাবে সফল হয়েছি। আফসোস, এরপরই মহামারির কবলে পড়ি। আমাদের হলগুলো বন্ধ হয়ে যায়।”

“আমরা খেয়ে না খেয়ে তখন নিজেদের টিকিয়ে রেখেছিলাম। আশার কথা, আবারও আমরা ঘুরে দাঁড়িয়েছি। আমাদের সিনেমাও জেগে উঠেছে। সেই আনন্দের রেশ ধরে এই শুভদিনে জানাতে চাই, আমরা চারটি পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমা নির্মাণের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি। স্ক্রিপ্ট চলছে। আশা করছি, আসছে বছরে অন্তত তিনটি সিনেমা আমরা আপনাদের উপহার দিতে পারব। কারণ, বাংলা সিনেমার এই হাওয়া আমাদের সবাইকে মিলে ধরে রাখতে হবে।’’

ওই সময় তিনি স্টার সিনেপ্লেক্সের শাখা ঢাকার বাইরে ছড়িয়ে দেওয়ার কথাও জানান। যে তালিকায় রয়েছে চট্টগ্রাম, বগুড়া, রাজশাহী, কক্সবাজার, সিলেট, খুলনাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা।

মাহবুব রহমান বলেন, ‘‘আজ আমরা ১৮ বছর অতিক্রম করলাম। আশা করছি, এখন থেকে সেন্সর বোর্ড আমাদের ১৮+ সিনেমাও চালানোর অনুমতি দেবেন। তার চেয়ে বড় বিষয়, ১৮ বছরে আমরা ১৮টি স্ক্রিন দিতে পেরেছি। কিন্তু আমার লক্ষ্য সেঞ্চুরি। সেই লক্ষ্যে আমি নিরন্তর কাজ করে চলেছি। এর মধ্যে অনেক জেলায় প্রজেক্ট চলছে, কিছু জেলায় জায়গা খুঁজছি। আমার বিশ্বাস, আমরা যদিও ১০০ স্ক্রিন যোগ করতে পারি, সঙ্গে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর যে উদ্যোগ, সেখান থেকেও ১০০টি স্ক্রিন হবে দ্রুত। দুটো মিলিয়ে আমাদের প্রেক্ষাগৃহ সংকট কেটে যাবে বলে বিশ্বাস করি। এর জন্য প্রয়োজন, ‘পরাণ’, ‘হাওয়া’, ‘অপারেশন সুন্দরবন’ এবং ‘দামাল’-এর মতো ছবি।’’

সে সময় মুক্তি প্রতীক্ষিত ‘দামাল’ টিম (রায়হান রাফী, সিয়াম আহমেদ, মিম প্রমুখ) উপস্থিত ছিল। আরও ছিলেন ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ আজমেরী হক বাঁধন, ‘ন ডরাই’ সুনেরাহ বিনতে কামাল, ‘বিশ্বসুন্দরী’ চয়নিকা চৌধুরী, ‘অপারেশন সুন্দরবন’ দীপংকর দীপন, ‘চাদর’ সিনেমার সাইমন সাদিক, চিত্রনায়ক জিয়াউল রোশানসহ আরও অনেকেই।

২০০৪ সালের ৮ অক্টোবর রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি শপিংমলে স্টার সিনেপ্লেক্সে প্রথম শাখার যাত্রা হয়। গত ১৮ বছরে প্রতিষ্ঠানটি আরও শাখা খুলেছে রাজধানীর ধানমন্ডি, মহাখালী, বিজয় সরণি ও মিরপুরে।

ওআ/

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ