spot_img
31 C
Dhaka
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ইং, ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯বাংলা

বিএসএমএমইউ’র ইন্টারভেনশনাল হেপাটোলজি ডিভিশনের প্রতিষ্ঠা বাষির্কী উদযাপন

- Advertisement -

নিজস্ব প্রতিবেদক, সুখবর বাংলা: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ডা. মিলন হলে সাড়ম্বরে উদযাপিত হলো ইন্টারভেনশনাল হেপাটোলজি ডিভিশনের প্রথম প্রতিষ্ঠা বাষির্কী।

এ উপলক্ষে আয়োজিত ইন্টারভেনশনাল হেপাটোলজি উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোঃ শরফুদ্দিন আহমেদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের কেন্দ্রীয় মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এম. এ.আজিজ। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এসোসিয়েশন ফর দ্যা স্টাডি অব লিভার ডিজিজেজ বাংলাদেশের সভাপতি অধ্যাপক ডা. সেলিমুর রহমান। সন্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মোঃ জাহিদ হোসেন এবং উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) অধ্যাপক ডা. একেএম মোশাররফ হোসেন। হেপাটোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. আইয়ুব আল মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইন্টারভেনশনাল হেপাটোলজি ডিভিশনের প্রতিষ্ঠাতা ডিভিশন প্রধান অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব (স্বপ্নীল)।

দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীসহ দেশ-বিদেশের প্রথিতযশা লিভার বিশেষজ্ঞরা বাণী প্রদান করেছেন, যাদের মধ্যে আছেন ইউরেশিয়ান গ্যাস্ট্রোএন্টারলজিকাল এসোসিয়েশনের সভাপতি অধ্যাপক ডা. হাসান ওজকান, সাউথ এশিয়ান এসোসিয়েশন ফর দ্যা স্টাডি অব দ্যা লিভারের সভাপতি অধ্যাপক ডা. এস পি সিং, এসোসিয়েশন ফর দ্যা স্টাডি অব লিভার ডিজিজেজ বাংলাদেশের সভাপতি অধ্যাপক ডা. সেলিমুর রহমান, ইউরেশিয়ান জার্নাল অব হেপাটোগ্যাস্ট্রোএন্টারলজির এডিটর ইন চিফ ডা. শেখ মোহাম্মদ ফজলে আকবর, কিউবার সেন্টার ফর জেনেটিং ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজির ডাইরেক্টর ডা. হেরারডো গুলিয়েন প্রমুখ।

প্রধানমন্ত্রী তার বাণীতে ন্যাসভ্যাক নামক হেপাটাইটিস বি ভাইরাসের নতুন ওষুধটিসহ উদ্ভাবনের জন্য দেশীয় লিভার বিশেষজ্ঞদের প্রশংসা করেন। তিনি ডিভিশনটিতে স্টেম সেল থেরাপী, টেইস ইত্যাদি আধুনিক চিকিৎসা পদ্ধতি প্রচলনের জন্য তার সন্তুোষ প্রকাশ করেন এবং এসমস্ত বিষয়ে তার সহযোগীতার আশ্বাস দেন।

অধ্যাপক ডা. স্বপ্নীল তার স্বাগত বক্তব্যে ইন্টারভেনশনাল হেপাটোলজি ডিভিশনের কার্যক্রম এবং লিভার চিকিৎসার আধুনিকতম পদ্ধতিগুলোয় দেশীয় লিভার বিশেষজ্ঞদের প্রশিক্ষিত করে তোলা ও পাশাপাশি ঢাকার গন্ডির বাইরে এই চিকিৎসা সেবা উপলব্ধ করার জন্য ডিভিশনটির উদ্যোগগুলোর উপর আলোকপাত করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে স্বাচিব মহাসচিব অধ্যাপক এম. এ. আজিজ প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা ও স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রীর সুযোগ্য পরিচালনায় দেশের স্বাস্থ্যখাতের একের পর এক সাফল্যের কথা তুলে ধরেন। তিনি বাংলাদেশে ইন্টারভেনশনাল হেপাটোলজির প্রচলন ও প্রসারে অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীলের ভূমিকার প্রশংসা করেন।

প্রধান অতিথি অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ এই ডিভিশনটির কর্মকান্ডের প্রশংসা করেন এবং এটিকে অন্যান্য সব ডিভিশন এবং ডিপাটমেন্টের জন্য উদাহরণস্বরূপ হিসেবে উল্লেখ করেন। প্রধান অতিথিসহ অনুষ্ঠানে অন্যান্য সকল বক্তার বক্তেব্যেই অধ্যাপক ডা. স্বপ্নীলের প্রশংসা ছিল।

উৎসবের দ্বিতীয়ার্ধে ছিল লাইভ কেইস ডেমোন্সট্রেশন। এতে এন্ডোস্কপি স্যুইট থেকে এন্ডোস্কপিক রেট্রোগ্রেড কোলাঞ্জিও প্যানক্রিয়েটোগ্রাফি (ই.আর.সি.পি) ও উইথ স্পাইগ্লাস কোলাঞ্জিওস্কোপি করেন অধ্যাপক ডা. স্বপ্নীল ও সহযোগী অধ্যাপক ডা. এম এ রহিম।

অন্যদিকে ক্যাথল্যাব থেকে ট্রান্স আর্টারিয়াল কেমো এম্বোলাইযেশন (টেইস) করেন সহযোগী অধ্যাপক শেখ মোহাম্মদ নুরে আলম, সহযোগী অধ্যাপক ফয়েজ আহমেদ খন্দকার এবং সহকারী অধ্যাপক আহমেদ লুৎফুল মবিন এবং এ্যানেসথেসিওলজিস্ট সহকারী অধ্যাপক একরামুল হক সজল।

উল্লেখ্য, ডিভিশনটিতে মুজিব বর্ষ উদযাপনের আনুষ্ঠানিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে লিভার ফেইলিওর রোগীদের চিকিৎসায় ‘মুজিব প্রটোকল’ বা প্লাজমা একেচেঞ্জ চালু করা হয়েছিল। তাছাড়াও বাংলাদেশের লিভার বিশেষজ্ঞরা লিভার সিরোসিসের চিকিৎসায় এদেশে প্রথমবারেরমত অটোলোগাস হেমোপয়েটিক স্টেম সেল ট্রান্সপ্লান্টেশন শুরু করেন। পাশাপাশি একিউট এবং একিউট অন ক্রনিক লিভার ফেইলিওরের চিকিৎসায় লিভার ডায়ালাইসিস এবং লিভার সিরোসিস রোগীদের জন্য হেপাটিক ভেনাস প্রেশার গ্রেডিয়েন্ট মেজারমেন্ট (এইচ.ভি.পি.জি) প্রথমবারের মত শুরু করার কৃতিত্বও তাদেরই। এদেশে লিভার ক্যান্সারের রোগীদের জন্য বিশ্বের সর্বাধুনিক লোকোরিজিওনাল থেরাপী রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি এ্যাবলেশন এবং ট্রান্সআর্টারিয়াল কেমোএম্বোলাইজেশন আর নোবেল পুরস্কার বিজয়ী কনসেপ্ট ইমিউনথেরাপী প্রবর্তনের প্রতিকৃতও তারাই। বাংলাদেশের হেপাটোলজিষ্টরা হেপাটোলজি বিষয়ে কমপক্ষে ছয়টি টেক্সট ও রেফারেন্স বই সম্পাদনা করেছেন, যেগুলো এলসেভিয়ার, ম্যাকমিলান ও জেপির মতন আর্ন্তজাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মেডিকেল পাবলিশিং হাউজ থেকে প্রকাশিত হয়েছে।

লিভার বিশেষজ্ঞদের এতসব অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের অনুমোদনক্রমে বিশ্ববিদ্যালয়ে ইন্টারভেনশনাল হেপাটোলজি ডিভিশনটি প্রতিষ্ঠিত হয় এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ ৭ জুলাই, ২০২১, এ সংক্রান্ত আদেশটি ডিভিশনটির প্রতিষ্ঠাতা ডিভিশন প্রধান অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীলের হাতে তুলে দিয়েছিলেন।

পাশাপাশি ডিভিশনটি ঢাকার বাইরে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে লিভার রোগের আধুনিক চিকিৎসা পদ্ধতিগুলো প্রবর্তনের কাজ করে যাচ্ছে। এরই মধ্যে ডিভিশনটির সহযোগিতায় সিলেটের একটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অটোলোগাস হেমোপয়েটিক স্টেম সেল ট্রান্সপ্লান্টেশন ও ট্রান্সআর্টারিয়াল কেমোএম্বোলাইজেশন শুরু করা হয়েছে।

ডিভিশন প্রধান অধ্যাপক ডা. স্বপ্নীল জানান, “বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্টারভেনশনাল হেপাটোলজি ডিভিশনটি জাতির পিতার নামে প্রতিষ্ঠিত এই বিশ্ববিদ্যালয়ে তাঁর এবং তাঁর সুযোগ্যা কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন ও নির্দেশ বাস্তবায়নে আন্তরিকভাবে কাজ করে যেতে অঙ্গীকারবদ্ধ”।

আরো পড়ুন:

ডায়াবেটিস রোগীদের কি চিনির পরিবর্তে গুড় খাওয়া স্বাস্থ্যকর?

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ