spot_img
21 C
Dhaka

৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ইং, ১৬ই মাঘ, ১৪২৯বাংলা

প্রবাসীদের জন্য সুখবর দিলো বাংলাদেশ ব্যাংক

- Advertisement -

নিজস্ব প্রতিবেদক, সুখবর ডটকম: অবশেষে প্রবাসীদের জন্য দারুণ সুখবর দিলো বাংলাদেশ ব্যাংক। দেশে রেমিট্যান্স বাড়াতে সময়োপযোগী এক সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বিদেশ থেকে প্রবাসীরাও যাতে বিকাশ, নগদ, রকেট, এমক্যাশ, উপায় ইত্যাদিতে অ্যাকাউন্ট খুলতে ও পরিচালনা করতে পারেন, সেই সুবিধা শিগগিরই চালু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ফলে বিদেশে বসে বাংলাদেশিরা কোনো এজেন্ট ছাড়াই দেশে তৎক্ষণাৎ রেমিটেন্স যেমন পাঠাতে পারবেন, তেমনই দেশে এসেও নিজের সেই অ্যাকাউন্টের অর্থ ব্যবহার করতে পারবেন।

এমন সব সুবিধার কথা জানিয়ে গত ২৯ নভেম্বর একটি পরিপত্র জারি করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বর্তমানে প্রবাসীরা তাদের স্বজনের বিকাশ, রকেট নম্বরে রেমিটেন্স পাঠাতে চাইলে বিদেশের নির্দিষ্ট এজেন্টের মাধ্যমে তা পাঠাতে হয়। তবে নতুন সুবিধা চালু হলে প্রবাসীরা নিজেরাই ঘরে বসে নিজের দেশের মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট পরিচালনা করতে পারবেন।

তবে, এ সুবিধা দিতে দেশের লাইসেন্স পাওয়া এমএফএস সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোকে আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে সার্ভিস প্রোভাইডার, পরিশোধ ব্যবস্থা, ব্যাংক, ডিজিটাল ওয়ালেট, কার্ড স্কিম বা সমজাতীয় প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হতে হবে। এর অনুমোদন নিতে আগ্রহী এমএফএস সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানকে আগামী ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকে আবেদন করতে হবে। আবেদন যাছাই-বাছাইয়ের পর পরীক্ষামূলকভাবে সেবাটি চালু করবে বাংলাদেশ ব্যাংক, যা পরে পূর্ণাঙ্গরূপে চালু হবে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক জানিয়েছে, ই-কেওয়াইসি (অনলাইনে গ্রাহক পরিচিতির তথ্য) মাধ্যমে যে কোনো প্রবাসী এমএফএস হিসাব খুলতে পারবেন। এজন্য বিদেশে যাওয়ার আনুষঙ্গিক তথ্য দিতে হবে। প্রবাসীরা সংশ্লিষ্ট এমএফএসের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হওয়া পেমেন্ট ব্যবস্থা ব্যবহার করে দেশীয় এমএফএস অ্যাকাউন্টে কেবল বিদেশি মুদ্রা জমা করতে পারবেন, যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে টাকায় রূপান্তর হবে।

কোনো প্রবাসী দেশে আসার পর হিসাবটি ব্যবহার করতে পারবেন, তখন তা স্থানীয় অ্যাকাউন্ট হিসেবে পরিচালনা করা যাবে। আবার বিদেশে ফেরত গেলে তা প্রবাসী অ্যাকাউন্টে রূপান্তর হবে, সেজন্য প্রয়োজনীয় নথি উপস্থাপন করতে হবে। জানা গেছে, ২০১০ সালে মোবাইল ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু করে বাংলাদেশ ব্যাংক। পরের বছরের ৩১ মার্চ বেসরকারি খাতের ডাচ-বাংলা ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং সেবা চালুর মধ্য দিয়ে দেশে এমএফএস সেবা শুরু হয়। এরপর এই সেবা দ্রুত প্রসার ঘটে। বর্তমানে দেশে রকেট, বিকাশ, নগদসহ মোট ১৩টি এমএফএস প্রতিষ্ঠান সেবা দিচ্ছে। দৈনিক গড়ে এই সেক্টরে প্রায় ২ হাজার ২৯৫ কোটি টাকা লেনদেন হয়।

এম এইচ/ আইকেজে

আরও পড়ুন:

ব্যাংকে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত জমায় অহেতুক প্রশ্ন করা যাবে না

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ