spot_img
28 C
Dhaka

৩১শে জানুয়ারি, ২০২৩ইং, ১৭ই মাঘ, ১৪২৯বাংলা

পিএসএলের কারণে বিপিএল ছাড়ছেন পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা

- Advertisement -

স্পোর্টস ডেস্ক, সুখবর ডটকম: চলমান বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) বিদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে পাকিস্তানিদের সংখ্যাই বেশি। বিপিএলের মাঝপথেই বাংলাদেশ ছাড়ছেন এই ক্রিকেটাররা। মূলত চলতি বিপিএলে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররাই দর্শকদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল।

আগামী ৩১ জানুয়ারির পরই বিপিএল ছাড়ছেন পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। নিজেদের ইচ্ছায় নয়, পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা বিপিএল ছাড়ছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) নির্দেশে। পাকিস্তানের গণমাধ্যমগুলোর খবরে দাবি করা হয়েছে, দ্রুতই ক্রিকেটারদের বিপিএল ছেড়ে দেশে ফেরার নির্দেশ দিয়েছে পিসিবি।

হঠাৎ পিসিবির এমন নির্দেশ জারির কারণ? কারণ, আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হতে যাচ্ছে পাকিস্তানের সুপার লিগ (পিএসএল)। তার আগে ক্রিকেটাররা যেন নিজেদের কন্ডিশনে ভালোভাবে প্রস্তুতি নিতে পারে, তাই পিএসএলের ফ্যাঞ্চাইজিগুলো পিসিবির কাছে আর্জি জানায় বিপিএল খেলতে আসা ক্রিকেটারদের দ্রুত দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার। ফ্যাঞ্চাইজিগুলোর সেই অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতেই ক্রিকেটারদের দ্রুত দেশে ফেরার আদেশ দিয়েছে পিসিবি। আগামী ২ ফেব্রুয়ারির মধ্যেই পাকিস্তানের সব ক্রিকেটারকে দেশে ফিরতে বলা হয়েছে।

বিপিএলের সিলেটপর্বটাও খেলবেন মোহাম্মদ আমির, মোহাম্মদ রিজওয়ান, ওয়াহাব রিয়াজ, শোয়েব মালিক, আজম খান, উসমান খানরা। ঢাকার দ্বিতীয়পর্ব শেষে বিপিএল এখন সিলেটপর্বের অপেক্ষায়। ২৭ জানুয়ারি শুরু হয়ে সিলেট পর্ব চলবে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত। এরপর আবার ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ঢাকার তৃতীয়পর্ব। কিন্তু তার আগেই পাকিস্তানি-শূন্য হয়ে আকর্ষণ হারিয়ে ফেলবে বিপিএল।

এবারের বিপিএলে এখনো পর্যন্ত যে তিনটি সেঞ্চুরি হয়েছে, সেই তিনটি সেঞ্চুরিই করেছেন পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। বল হাতে এখনো পর্যন্ত সর্বোচ্চ উইকেটশিকারিও একজন পাকিস্তানিই-ওয়াহাব রিয়াজ। খুলনা টাইগার্সের হয়ে তিনি ৬ ম্যাচে নিয়েছেন ১২ উইকেট।

একমাত্র পাকিস্তানিরাই এবারের বিপিএলের বিদেশি আকর্ষণ। পাকিস্তানিদের বাইরেও বেশকিছু বিদেশি ক্রিকেটার বিপিএলে খেলছেন, তবে তাদের তারকাখ্যাতি তেমন নেই বললেই চলে। ব্যাটে-বলে তাদের পারফরম্যান্সও উল্লেখ করার মতো নয়। সুতরাং পাকিস্তানিরা চলে গেলে সত্যিকার অর্থেই বিবর্ণ হয়ে যাবে বিপিএল। দেশি ক্রিকেটারদের ওপরই নির্ভর করতে হবে দলগুলোকে। পাকিস্তানিরা চলে গেলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস। দলটিতে পাকিস্তানি ক্রিকেটার রয়েছেন পাঁচ জন-মোহাম্মদ রিজওয়ান, হাসান আলি, খুশদিল শাহ, নাসিম শাহ ও আবরার আহমেদ। বরিশাল, ঢাকা, রংপুর, সিলেট ও খুলনার হয়ে খেলছেন তিন জন করে পাকিস্তানি। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সে আছেন দুজন-মানে মোট ২২ জন পাকিস্তানি খেলছেন এবারের বিপিএলে।

সাকিবের বরিশালের হয়ে খেলছেন ইফতিখার আহমেদ, হায়দার আলি ও মোহাম্মদ ওয়াসিম, ঢাকার হয়ে খেলছেন আহমেদ শেহজাদ, শান মাসুদ ও সালমান ইরশাদ, রংপুরে রয়েছেন মোহাম্মদ নাওয়াজ, শোয়েব মালিক ও হারিস রউফ, মাশরাফির সিলেটের হয়ে আলো ছড়াচ্ছেন মোহাম্মদ আমির, মোহাম্মদ হারিস ও ইমাদ ওয়াসিম, খুলনার হয়ে খেলছেন  ওয়াহাব রিয়াজ, এমাদ বাট ও আজম খান এবং চট্টগ্রাম দলে আছেন উসমান খান ও খাজা নাফে।

এম/

আরো পড়ুন:

টিভিতে দেখুন আজকের খেলা  (২৬ জানুয়ারি ২০২৩)

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ