spot_img
27 C
Dhaka

২৭শে নভেম্বর, ২০২২ইং, ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

সর্বশেষ
***জঙ্গি ছিনতাইয়ের মামলার আসামি ইদী আমিনের আত্মসমর্পণ***অনলাইন গণমাধ্যম কর্মীদের নিয়ে জাতীয় গণমাধ্যম ইনস্টিটিউটের প্রশিক্ষণ কর্মশালা***নিজের জন্য পাত্র চাইলেন স্বস্তিকা***জলাশয়ের অপর্যাপ্ত ব্যবস্থাপনাই পাকিস্তানের বন্যা ও খরার মূল কারণ***ইউক্রেনের ক্ষমতা থেকে নব্য-নাৎসীবাদীদের বিতাড়িত করতে হবে : রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী***২০২৩ বিশ্বকাপে সরাসরি খেলবে বাংলাদেশ***পাকিস্তানে নির্বাহী ভাতা না পেয়ে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের বিক্ষোভের ডাক***জার্সিতে সমর্থন, জার্সিতে ফ্যাশন***মেসিকে ‘উড়ন্ত চুমু’ দিয়ে যা বললেন পরীমণি***বড় ঋণখেলাপিরা কি ধরাছোঁয়ার বাইরে থাকবে? : দুদককে হাইকোর্ট

পান পাতার ঔষধি গুনাগুণ ও উপকারিতা

- Advertisement -

লাইফস্টাইল ডেস্ক, সুখবর বাংলা: পান আমাদের দেশের একটি অতি পরিচিত খাবার। নানী-দাদীদের অনেকেরই অভ্যাস আছে এই পান পাতা খাওয়ার। তাই বিভিন্ন স্থানে বাণিজ্যিক ভাবে এর চাষও করা হয়। তবে মশলা, সুপারি, জর্দা ও অন্যান্য মশলা ব্যবহারে খাওয়ার মধ্যেই পান পাতার উপকারিতা শেষ নয়।

আসুন জেনে নেই স্বাস্থ্য সমস্যায় পান পাতার কিছু গুরুত্বপূর্ণ ব্যবহার সম্পর্কে। আয়ুর্বেদ শাস্ত্র মতে পান খেলে ক্যান্সারের মতো ভয়াবহ রোগকেও প্রতিহত করা ‌যায়। পানের রসে মধ্যে থাকা সুপুরি, চুন, লবঙ্গ, গুলকন্দ হজম শক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। শুধু মাত্র হজম শক্তিই যে বাড়ায় তা নয়, সুগন্ধি হিসেবেও কাজ করে পান।

পান পাতার কিছু ঔষধি গুনাগুণ:

(১). মাউথ ফ্রেশনার: পান পাতা খাওয়ার ফলে যে রস উৎপাদন হয় তা আমাদের দাঁত আর মাড়ি সুস্থ রাখে। এছাড়াও পান পাতার রস আমাদের মুখের ভেতরটা পরিষ্কার রাখে। এমনকী মুখের মধ্যে রক্তপাতও বন্ধ করে। পান বেটে তার রস এক কাপ হাল্কা গরম পানিতে মিশিয়ে রোজ সকালে তা দিয়ে গর্গর করুন। কয়েকদিনর মধ্যেই তফাত দেখতে পাবেন।

(২). নাক থেকে রক্ত পড়া থামায়: অনেক সময় সান স্ট্রোক হওয়ার ফলে নাক দিয়ে রক্ত পড়ে। এটা বন্ধ করতে একটি পান পাতা গোল করে পাকিয়ে তা নাকের মধ্যে গুঁজে দিন। মাথা পিছনের দিকে হেলিয়ে রাখতে হবে। কিছুক্ষণের মধ্যেই রক্ত পড়া বন্ধ হয়ে যাবে। আসলে পান পাতা খুব তাড়াতাড়ি রক্ত জমাট বাঁধিয়ে দিতে পারে।

(৩). কানের ব্যথা কমাতে সাহায্য করে: পান পাতার আরো একটা বড় গুণ হলো এটা কানের ব্যথা কমাতে সাহায্য করে। কয়েক ফোঁটা পানের রস আর কয়েক ফোঁটা নারকেল তেল একসঙ্গে মিশিয়ে কানের মধ্যে দিলে ব্যথা কমে যাবে। তবে এই ক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়াই ভালো।

(৪). অ্যান্টিসেপ্টিক হিসেবে ব্যবহার: ছোটখাটো কাটা ছেড়ায় পান পাতা বেটে লাগিয়ে দিতে পারেন। এছাড়াও যাদের আর্থারাইটিস আছে তাদের ব্যথা কমাতেও সাহায্য করে এই পান পাতা।

(৫). ডিওডোরেন্টের কাজ করে: বিশ্বাস হচ্ছে না তো? তাহলে নিজেই পরীক্ষা করে দেখুন। গোসল করার পানিতে কিছুটা পান পাতার রস মিশিয়ে নিন। এই পানি দিয়ে গোসল করলে সারাদিন ফ্রেশ লাগবে। এছাড়াও ঘাম কম হবে। পান পাতা দিয়ে পানি ফুটিয়ে ঠান্ডা করে সেই পানি পান করলে ঘামের গন্ধ কমবে। এমনকী মহিলাদের মেনস্ট্রুয়েশন স্মেল ও কমবে।

(৬). প্রস্রাব করতে সাহায্য করে: বিশেষত কিডনির রোগ আছে যাদের তাদের প্রস্রাব করতে কষ্ট হয়। এই কষ্ট কমাতে সাহায্য করে পান পাতা। শরীর থেকে দ্রুত পানি বের করে দেওয়ার ক্ষমতা আছে পান পাতার। দুধের সঙ্গে পান বেটে খেলে এই ব্যাপারে সাহায্য পাবেন।

(৭). ত্বকের জন্য ভালো: খুব কম লোকেই জানে পানে যে অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল প্রপার্টি আছে তা পিম্পল‚ অ্যাকনে সহজেই সারিয়ে তোলে। এছাড়াও বিভিন্ন স্কিন অ্যালার্জি‚ ফুসকুড়ি‚ কালো ছোপ‚ সান বার্ন সারিয়ে দেয়। এর জন্য কয়েকটা তাজা পান পাতা আর কাঁচা হলুদ একসঙ্গে বেটে লাগাতে হবে।

(৮). মাথা ব্যথা কমায়: গরমের কারণে মাথা ব্যথা করলে কপালে কয়েকটা পান পাতা রাখুন। এছাড়াও পান পাতার রস লাগালে তাড়াতাড়ি মাথা ব্যথা কমে যায়।

(৯). অ্যান্টি ফাংগাল: শরীরের যে সব অংশে ফাংগাল ইনফেকশন হওয়ার সম্ভাবনা আছে‚ যেমন পায়ের আঙুল‚ প্রভৃতি সেই সব জায়গায় পানপাতার রস লাগান। কয়েকদিনের মধ্যে ইনফেকশন সেরে যাবে।

(১০). সর্দি কমায়: বুকে সর্দি জমে গেলে সরিষার তেল আর পান পাতা ভালো করে গরম করে বুকে লাগাতে হবে। এছাড়াও ঠান্ডা লেগে সর্দি হলে পান পাতা‚ এলাচ‚ লবঙ্গ একসঙ্গে ফুটিয়ে গাঢ় করে খেতে হবে।

(১৩). হজমশক্তি বাড়ায়: সাধারণত খাওয়ার পর পান খাওয়া হয়। এটা করা হয় কারণ পান হজম করতে সাহায্য করে। গ্যাস‚ অম্বলও কমায়। এছাড়াও যাদের কনস্টিপেশনের সমস্যা আছে তাদের জন্যেও উপকারী। পেট খারাপ হলে পেটে যে ব্যথা করে অনেকসময় তাও কমাতে সাহায্য করে।

(১৪). মেটাবলিজম বাড়ায়: নিয়মিত পান খেলে শরীরের মেটাবলিজম বাড়ে। এর ফলে ব্লাড সার্কুলেশন বেড়ে যায়। যা বিভিন্ন প্রটিন‚ ভিটামিন‚ মিনারেল অ্যাবজর্ব করতে সাহায্য করতে।

(১৫). খিদে বাড়ায়: পেটের পিএইচ লেভেল ঠিক করতে সাহায্য করে পানের রস। এর ফলে পেটে বায়ু হয় না এছাড়াও পেট ফাঁপা কমায়। পান পাতা শরীর থেকে টক্সিন বের করতে সাহায্য করে। এর ফলে খিদে বাড়ে।

(১৬). ক্ষত নিরাময়ে: পান পাতায় আছে অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল রাসায়নিক। তাই পান পাতা বেটে ক্ষতস্থানে দিলে দ্রুত ক্ষত নিরাময় হয়। পান পাতা ব্যবহার করলে সংক্রমণের ভয়ও থাকে না। পানের বেদনানাশক গুণ থাকায় ব্যথা হতে মুক্তি মেলে।

(১৭). গলার খুসখুসি ভাব কমাতে: গলা খুসখুস করলে পান পাতার ৫ মিলিলিটার রস এক গ্লাস গরম পানিতে মিশিয়ে আস্তে আস্তে খান। এতে আরাম পাবেন। বিখ্যাত অনেক গায়ক গলা ভাল রাখতে এই সূত্র ব্যবহার করতেন।

এম এইচ/

আরো পড়ুন:

পুরুষত্ব বাড়াবে শিমুলের মূল!

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ