spot_img
22 C
Dhaka

২রা ডিসেম্বর, ২০২২ইং, ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

পাকিস্তানের প্রাদেশিক সরকারকে ব্যর্থতার দায়ে অভিযুক্ত করেছে পাকিস্তান জাতীয় পার্টি

- Advertisement -

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, সুখবর বাংলা: পাকিস্তানের বেলুচিস্তান প্রদেশে সক্রিয় বৃহত্তম দল জাতীয় পার্টি, প্রাদেশিক সরকারকে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নয়নে ব্যর্থতার জন্য অভিযুক্ত করেছে। এটি অভিযোগ করে বলে যে, অপরাধ এখন দৈনন্দিন ব্যাপার হয়ে উঠেছে।

ন্যাশনাল পার্টির সেক্রেটারি জেনারেল জান মুহাম্মদ বুলিদি এবং কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হাজি ফারুক শাহওয়ানি বলেছেন, বেলুচিস্তান সরকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতিতে এবং জাতীয় মহাসড়কগুলিকে নিরাপদ করতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে।

পার্টি জানায়, “সমস্ত জাতীয় মহাসড়কগুলো অনিরাপদ। মহাসড়কগুলোতে ডাকাতদের রাজত্ব চলে। অন্যদিকে রাস্তায় ঘটে যাওয়া অপরাধের সংখ্যা শহরগুলোতে ব্যাপক পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে। চুরি-ডাকাতি কোয়েটা এবং আশেপাশের শহরগুলিতে একটি নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে।”

“রাষ্ট্র ও প্রশাসনিক প্রতিষ্ঠানগুলো এখানে নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে। পুলিশ তার সাংবিধানিক ও আইনগত ভূমিকা পালন করছে না। গুরুত্বপূর্ণ পদে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ, সুপারিশের সংস্কৃতি এবং চাঁদাবাজি পুলিশ ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়েছে।”

এই বিষয়গুলির জন্য সরকারকে দায়ী করেছে জাতীয় পার্টি।

গত বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের বেলুচিস্তান প্রদেশের কোয়েটা শহরে সশস্ত্র ব্যক্তিদের হামলা ও গুলি চালানোর পর দুইজনের নিহত হওয়ার খবর সামনে আসে। পুলিশ জানায়, একটি দায়রা জজ আদালতের সামনে হামলাটি করা হয়।

আহতদের মধ্যে একজন, সরদার নাসিম তারিন। শুনানি শেষে আদালত থেকে বের হওয়ার সময় আদালত প্রাঙ্গণের বাইরে অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিরা তার উপর হামলা চালায়।

এদিকে, আদালতের বাইরে অপেক্ষমাণ সশস্ত্র হামলাকারীদের গুলিতে তারিনের সাথে থাকা আরও আটজন লোক মারাত্মকভাবে আহত হয়। ঘটনাটির পর আহতদের নিকটস্থ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

পাকিস্তানের ভৌগলিক আয়তনের দিক থেকে একটি বৃহত্তম প্রদেশ হলো বেলুচিস্তান। এটি পাকিস্তানের মোট আয়তনের প্রায় ৪৩ শতাংশ জায়গা দখল করে আছে। পাকিস্তানের বৃহত্তম প্রদেশ হওয়ার সাথে সাথে এ অঞ্চল সবচেয়ে দরিদ্র, কম জনবহুল এবং অপরাধপ্রবণ একটি অঞ্চল।

তাছাড়া বেলুচিস্তানের ৭০ শতাংশ মানুষ দারিদ্র্যের মধ্যে বাস করে। পাকিস্তানে মাতৃমৃত্যুর হার প্রতি ১,০০,০০০ জনে ২৭৮ জন। অথচ বেলুচিস্তানে সে হার এসে দাঁড়িয়েছে ৭৮৫ জনে। বেলুচিস্তানের সুইতে প্রাকৃতিক গ্যাস আবিষ্কৃত হয়েছে, যদিও প্রদেশের বিরাট অংশ এখনও প্রাকৃতিক গ্যাস থেকেই বঞ্চিত।

তবে এটি বুঝা উচিত যে, বেলুচিস্তানে সংঘটিত সহিংসতা শুধুমাত্র সন্ত্রাসবাদের কারণে নয়। এ বিদ্রোহীরা বেশিরভাগই স্থানীয় মানুষ যারা তাদের সাংবিধানিক অধিকার আদায় করে নিতে চান।

তাই, বেলুচিস্তানের বেশিরভাগ বিদ্রোহী আন্দোলনের সাথে বঞ্চনা ও অনুন্নয়নের একটি সম্পর্ক পরিলক্ষিত হয়।

এম এইচ/

আরো পড়ুন:

তৃতীয় মেয়াদের নেতৃত্বে শি’র ‘স্বেচ্ছাচার’ || বিপরীতে নেই কোনো প্রভাবশালী শক্তি

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ