spot_img
20 C
Dhaka

২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩ইং, ১৩ই মাঘ, ১৪২৯বাংলা

নরম সুরের পরই হঠাৎ গরম রাশিয়া

- Advertisement -

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, সুখবর ডটকম: যুদ্ধ বন্ধে নরম সুরের পরপরই আবার গরম হয়ে উঠেছে রাশিয়া। বেছে বেছে ইউক্রেনের বেশ কয়েকটি শহরে বড় হামলা চালাল। রোববার বড়দিনেই রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন রাশিয়া ১-এ দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, তিনি সমঝোতার জন্য প্রস্তুত। কিন্তু ইউক্রেন ও তার পশ্চিমা মিত্ররা পাত্তা দেয়নি।

পরে ওইদিনই হামলা বাড়িয়েছে রাশিয়া। ইউক্রেনের সেনাবাহিনী জানিয়েছে, এদিন ৫টি ক্ষেপণাস্ত্র হামলাসহ ৪০টিরও বেশি রকেট ছুড়েছে রাশিয়া।

খেরসনের মুখে দিনিপ্রো নদীর ডান তীরে বসতিগুলোতে আর্টিলারি গোলাবর্ষণ অব্যাহত রেখেছে। খারকিভ অঞ্চলের কুপিয়ানস্ক এলাকায় ১০টির বেশি রকেট হামলা চালিয়েছে। কুপিয়ানস্ক-লিম্যান ফ্রন্টলাইনে ২৫টির বেশি শহরে শেল ছুড়েছে রাশিয়া। ঝাপোরিঝঝিয়ায় প্রায় ২০টি শহরে হামলা চালিয়েছে। আলজাজিরা, রয়টার্স।

পুতিনের এ প্রস্তাব শোনার পর ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির উপদেষ্টা মিখাইলো পোডোলিয়াক এক টুইটে বলেন, রাশিয়া আলোচনা চায়নি। দায়িত্ব এড়াতে চেয়েছে। ইউক্রেনের পক্ষ থেকে এ ধরনের বক্তব্য আসার পর হামলা বাড়িয়েছে রাশিয়া। পাল্টা প্রতিক্রিয়ায় সোমবার ভোরে রাশিয়ার সারাতভ অঞ্চলের এঙ্গেলস বিমান ঘাঁটিতে আবারও ড্রোন হামলা চালায় কিয়েভ। ড্রোনের ধ্বংসাবশেষ ভেঙে পড়ার ঘটনায় তিনজন নিহত হয়েছেন। নিহত ওই তিনজনই রাশিয়ার সামরিক কর্মী। এঙ্গেলস বিমান ঘাঁটিতে দ্বিতীয় দফায় হামলার ঘটনা ঘটল।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সারাতভ অঞ্চলে এঙ্গেলস সামরিক বিমান ঘাঁটির কাছে যাওয়ার সময় ইউক্রেনীয় মানববিহীন ড্রোনকে গুলি করে নামানো হয়। ড্রোনের ধ্বংসাবশেষের পতনের ফলে এয়ারফিল্ডে থাকা প্রযুক্তিকর্মীদের তিনজন মারাত্মকভাবে আহত হন। এঙ্গেলস বিমান ঘাঁটি রাশিয়ার সারাতভ শহরের কাছে অবস্থিত। এই ঘাঁটিটি মস্কো থেকে প্রায় ৭৩০ কিমি. (৪৫০ মাইল) দক্ষিণ-পূর্বে এবং ইউক্রেনের যুদ্ধক্ষেত্র থেকে কয়েকশ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এর আগে গত ৫ ডিসেম্বর একই ঘাঁটিতে হামলার ঘটনা ঘটে। সে সময় রাশিয়া বলেছিল, দুটি রুশ বিমান ঘাঁটিতে ইউক্রেনীয় ড্রোন হামলা হয়েছে।

রয়টার্স বলছে, ডিসেম্বরের শুরুর দিকে ইউক্রেনীয় জোড়া হামলা রাশিয়ার সুনামকে ব্যাপকভাবে ধাক্কা দিয়েছে এবং কেন মস্কো ওই হামলা রুখতে ব্যর্থ হয়েছে সে বিষয়েও প্রশ্ন উঠেছে। রাশিয়ার দক্ষিণাঞ্চলের ভলগা নদীর তীরে অবস্থিত এঙ্গেলস বিমান ঘাঁটিতে মস্কোর কিছু দূরপাল্লার পারমাণবিক বোমারু বিমান নোঙর করা আছে। এই ঘাঁটিতে পারমাণবিক বোমাবাহী তুপোলেপ-১৬০ ও তুপোলেভ-৯৫ বিমানও রাখা আছে। এছাড়া এঙ্গেলস বিমান ঘাঁটি ইউক্রেনের সীমান্ত থেকে ৩০০ মাইল দূরে অবস্থিত। যা ইউক্রেনের অস্ত্রাগারের যে কোনো পরিচিত ক্ষেপণাস্ত্রের নাগালের বাইরে।

এদিকে ইউরোপের দেশগুলোতে পুনরায় গ্যাস সরবরাহ করতে প্রস্তুত বলে জানিয়েছে রাশিয়া। ইয়ামাল-ইউরোপ গ্যাস পাইপলাইনের মাধ্যমে গ্যাস সরবরাহ করার কথা জানিয়েছে রাশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী আলেক্সান্ডার নোভাক।

এর আগে এই পাইপলাইনের মাধ্যমে ইউরোপে গ্যাস সরবরাহ করা হলেও পরে রাজনৈতিক কারণে তা বন্ধ হয়ে যায়। ইউরোপের বাজারে গ্যাসের ঘাটতি অব্যাহত থাকায় এই সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছেন রুশ উপপ্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ইয়ামাল-ইউরোপ পাইপলাইনটি রাজনৈতিক কারণে বন্ধ রয়েছে।

ওদিকে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য পদ থেকে রাশিয়ার অপসারণ দাবি করেছে ইউক্রেন। সোমবার এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্রো কুলেবা এমন দাবি জানিয়েছেন। রোববার রাতে ইউক্রেনের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, ‘আগামীকাল আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে আমাদের অবস্থান প্রকাশ করব। আমাদের একটি খুব সহজ প্রশ্ন আছে। রাশিয়ার কী নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য থাকার এবং আদৌ জাতিসংঘে থাকার অধিকার আছে? আমাদের কাছে এটির একটি বিশ্বাসযোগ্য ও যুক্তিযুক্ত উত্তর আছে। না! এই অধিকার তাদের নেই!’ রাত পোহাতেই জাতিসংঘের উদ্দেশে সেই আহ্বান জানাল ইউক্রেন।

এম/ আই. কে. জে/

আরো পড়ুন:

যুক্তরাষ্ট্র যেন একটি ডিপ ফ্রিজ

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ