spot_img
22 C
Dhaka

৯ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ইং, ২৬শে মাঘ, ১৪২৯বাংলা

তীব্র গম সংকট: পাকিস্তানে ‘কৃষি জরুরি অবস্থা’ ঘোষণার দাবি

- Advertisement -

ডেস্ক রিপোর্ট, সুখবর ডটকম: পাকিস্তানে চলমান গম সংকটের মধ্যে গত বুধবার, পাকিস্তান কৃষক সংগঠন পাকিস্তান কিসান ইত্তেহাদ (পিকেআই), দেশে একটি কৃষি জরুরি অবস্থা জারি করার জন্য কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেছে।

একটি সংবাদ সম্মেলনে, পিকেআই সভাপতি খালিদ মেহমুদ খোখার সরকারের নীতির সমালোচনা করে দাবি করেন যে এর ফলে, ২০২৩ সালে এসেও তাদেরকে গমের ঘাটতি পূরণ করতে হবে।

পিকেআই নেতা বাজারে সারের ঘাটতির কথাও উল্লেখ করেন এবং সরকারকে এ ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানান। শিল্পের কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহৃত ফসলের কম ফলনের কারণে, সারের ঘাটতি রপ্তানিতেও প্রভাব ফেলবে।

পাঞ্জাব এবং খাইবার-পাখতুনখাওয়া প্রদেশগুলি কোনও ঘোষণা না দিলেও, সিন্ধু প্রতি মণ পিকেআর ৪০০০ এর সমর্থন মূল্য নির্ধারণ করেছে।

খাইবার পাখতুনখোয়া, সিন্ধু এবং বেলুচিস্তান প্রদেশের বেশ কয়েকটি এলাকায় গমের ঘাটতি দেখা যাওয়ার সাথে সাথে বাজারে ময়দার ঘাটতিও দেখা যাচ্ছে।

করাচিতে ময়দা বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ১৪০ টাকা থেকে ১৬০ টাকায়। ইসলামাবাদ এবং পেশোয়ারে ১০ কেজি আটার ব্যাগ প্রতি কেজি ১৫০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে এবং ২০ কেজি আটার ব্যাগ বিক্রি হচ্ছে ২৮০০ টাকায়। পাঞ্জাব প্রদেশের মিল মালিকরা আটার দাম কেজি প্রতি ১৬০ টাকা বাড়িয়েছে।

বেলুচিস্তানের খাদ্যমন্ত্রী জামারাক আচাকজাই বলেছেন যে প্রদেশে গমের মজুদ সম্পূর্ণভাবে শেষ হয়ে গিয়েছে। তিনি জানান যে বেলুচিস্তানে অবিলম্বে ৪ লাখ বস্তা গমের প্রয়োজন অন্যথায়, সংকট আরও তীব্র হতে পারে।

একইভাবে, খাইবার পাখতুনখাওয়া আটার সংকট দেখা দিয়েছে। সরকার পণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হওয়ার পর ২০ কেজি আটার একটি ব্যাগ ৩১০০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে।

আইকেজে /

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ