spot_img
31 C
Dhaka
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

৭ই অক্টোবর, ২০২২ইং, ২২শে আশ্বিন, ১৪২৯বাংলা

ঢাকা-নিউইয়র্ক ফ্লাইট চালু চলতি বছরের শেষে

- Advertisement -

 নিজস্ব প্রতিবেদক, সুখবর বাংলা: চলতি বছরের শেষ নাগাদ ঢাকা-নিউইয়র্ক ফ্লাইট চালু করা যাবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মাসুদ বিন মোমেন।

মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ৩০তম বৈঠকে তিনি কমিটিকে এ বিষয়ে অবহিত করেন। বৈঠক সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

বৈঠকে ঢাকা-নিউইয়র্ক ফ্লাইট চালুর বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ঢাকা বিমানবন্দরে (হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর) সাদা চামড়াদের বিশেষ করে নিউইয়র্ক থেকে নিরাপত্তার বিষয়ে পরিদর্শনে আসা ব্যক্তিদের তেমন কোনো চেক না করে ছেড়ে দেওয়া হয়। এ কারণে তারা ঢাকা বিমানবন্দরের নিরাপত্তা বিষয়ে বিরূপ প্রতিবেদন দিয়েছেন। অপরদিকে প্রবাসী বাংলাদেশি শ্রমিকরা দেশে আসলে বিমানবন্দরে তাদের বিভিন্ন রকমের হয়রানি করা হয়। যে কারণে ঢাকা-নিউইয়র্ক ফ্লাইট চালুর ক্ষেত্রে কিছুটা বিলম্ব হচ্ছে।

বৈঠক সূত্রে আরো জানা যায়, বিশ্বে বাংলাদেশবিরোধী নেতিবাচক প্রচারণা মোকাবিলার পাশাপাশি ইতিবাচক প্রচারণায় আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে কলাম লেখক নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এসব কলাম লেখককে যথাযথ সম্মানীও দেওয়া হবে। পাশাপাশি এ কাজ সুচারুরূপে সম্পন্ন করতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একটি নতুন শাখা খোলারও উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের জনকূটনীতি অনুবিভাগের আওতায় নতুন এ শাখার নাম দেওয়া হয়েছে- ‘অভিবাসী কূটনীতি’। এই অধিশাখা খুলতে ইতোমধ্যে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে।

সরকারের পক্ষ থেকে সংসদীয় কমিটির সদস্যদের ভালো কলামিস্টদের সন্ধান দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলা হয়েছে, নেতিবাচক প্রচারণা বন্ধ ও ইতিবাচক প্রচারণা চালাতে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বৈঠক সূত্র জানায়, কমিটির আগের বৈঠকে বিদেশে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে নানা নেতিবাচক প্রচারণা বন্ধে মন্ত্রণালয়কে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছিল। এসব কর্মকাণ্ড পর্যবেক্ষণের লক্ষ্যে একটি আলাদা সেল গঠনেরও কথা বলা হয় ওই সুপারিশে। আগের বৈঠকের সুপারিশের অগ্রগতি প্রতিবেদনে আজ এসব তথ্য তুলে ধরা হয়।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রবাসী বা অভিবাসী বাংলাদেশিদের অনেকেই বাংলাদেশ সরকারের বিরুদ্ধে নেতিবাচক প্রচারণায় লিপ্ত হয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ অন্যান্য মিডিয়ায় তাদের সরব উপস্থিতি ও দেশবিরোধী আপত্তিকর মন্তব্য ও বক্তব্য প্রচারের জন্য বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। এসব ক্ষেত্রে স্বাগতিক দেশের নানাবিধ আইনি বাধ্যবাধকতার কারণে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া অনেক ক্ষেত্রে দুরূহ হয়ে পড়ে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী মন্ত্রণালয়ের জনকূটনীতি অনুবিভাগে ‘অভিবাসী কূটনীতি’ নামে একটি অধিশাখা সৃষ্টি করে একজন পরিচালকসহ দু’জন সহকারী সচিব পর্যায়ের কর্মকর্তা পদায়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। অধিশাখা সৃজনে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, অর্থ বিভাগসহ অন্যান্য অংশীজনের কাছে প্রস্তাব পাঠানোর কাজ চলছে।

কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খানের সভাপতিত্বে বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, নুরুল ইসলাম নাহিদ, গোলাম ফারুক, খন্দকার প্রিন্স, মো. আব্দুল মজিদ খান, মো. হাবিবে মিল্লাত, নাহিম রাজ্জাক ও কাজী নাবিল আহমেদ অংশ নেন।

বৈঠকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব, ভুটানে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত, মন্ত্রণালয় এবং সংসদ সচিবালয় সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আরো পড়ুন:

মিশরে বাংলাদেশিদের জন্য অন-অ্যারাইভাল ভিসা চালু

 

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ