spot_img
27 C
Dhaka

২৯শে নভেম্বর, ২০২২ইং, ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

সর্বশেষ
***যৌনপল্লীর গল্প নিয়ে পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমা ‘রঙবাজার’***কেন ক্ষমা চাইলেন কিংবদন্তি গায়ক বব ডিলান***বিলুপ্তপ্রায় কুমিরের সন্ধান, পুনর্ভবা নদীর তীরে মানুষের ভিড়***সোহরাওয়ার্দী উদ্যান নয়, নয়াপল্টনেই হবে সমাবেশ : বিএনপি***পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসী দল টিটিপি ইসলামাবাদের গলার কাঁটা?***পাকিস্তান-আফগানিস্তানের সম্পর্ক কি শেষের পথে?***শীত মৌসুম, তুষার এবং বরফকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে রাশিয়া : ন্যাটো***নানা সুবিধাসহ বাংলাদেশ ফাইন্যান্সে চাকরির সুযোগ***বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার সূচি ও আসনবিন্যাস প্রকাশ***পৃথিবীর কিছু অবিশ্বাস্য সৃষ্টি, যা আপনার কাছে খুবই আশ্চর্যজনক লাগবে

ডিজিটাল জীবনযাত্রার বৈশ্বিক সূচকে বড় অগ্রগতি বাংলাদেশের

- Advertisement -

ডেস্ক নিউজ, সুখবর বাংলা: ডিজিটাল জীবনযাত্রা কিংবা প্রাত্যহিক ও সামাজিক জীবনে ডিজিটাল সুবিধার ব্যবহার ও ভোগ সম্পর্কিত বৈশ্বিক সূচকে বাংলাদেশের ব্যাপক উন্নতি হয়েছে। এ ক্ষেত্রে গত এক বছরে বাংলাদেশ ২৭ ধাপ এগিয়েছে।

ডিজিটাল জীবনযাত্রার বৈশ্বিক সূচক ডিজিটাল কোয়ালিটি অব লাইফ ইনডেক্সের (ডিকিউএল) তথ্যানুসারে, ‘গত বছরের তুলনায় চলতি বছর ডিজিটাল জীবনযাত্রায় ২৭ ধাপ উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশের।‘

২০২১ সালে এ সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ছিলো ১০৩। চলতি বছরের সূচকে ৭৬তম অবস্থানে উঠে এসেছে বাংলাদেশ। এর মাধ্যমে ২৭ ধাপ উন্নতি করেছে দেশটি।

নেদারল্যান্ডসভিত্তিক ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক (ভিপিএন) পরিষেবা কোম্পানি সার্ফশার্ক ডিকিউএল সূচকটি পরিচালনা করে। বিশ্বের ১১৭ দেশকে এ সূচকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। বৈশ্বিক জনসংখ্যার শতকরা হিসাবে এতে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে পৃথিবীর ৯২ শতাংশ মানুষ। ২০১৮ সাল থেকে পরিচালিত হচ্ছে এ ডিকিউএল সূচক।

ডিজিটাল জীবন সম্পর্কিত পাঁচটি মৌলিক খাত বা স্তম্ভের ওপর ভিত্তি করে পরিচালিত হয় ডিকিউএল। এসব স্তম্ভ হলো ই-গভর্ন্যান্স, সাধারণ জনগণের ইন্টারনেট ডাটা ক্রয়ের ক্ষমতা, ইন্টারনেট পরিষেবার গুণাগুণ, ইন্টারনেট সম্পর্কিত নিরাপত্তা ও এ সম্পর্কিত অবকাঠামো। এসব খাতে প্রাপ্ত পয়েন্টের গড় হিসেবে ডিকিউএল সূচকে অন্তর্ভুক্ত কোনো দেশের অবস্থান নির্ধারিত হয়।

চলতি বছর সূচকের ই-গভর্ন্যান্স খাতে বাংলাদেশের ফলাফল সর্বনিম্ন। এ খাতে চলতি বছর বাংলাদেশের অবস্থান ৮৬তম। আর সবচেয়ে ভালো ফলাফল করেছে জনগণের ইন্টারনেট ক্রয় ক্ষমতা সম্পর্কিত খাতে। এ বিষয়ে বাংলাদেশের অবস্থান বর্তমান বিশ্বে ২৯তম।

এছাড়া ইন্টারনেট পরিষেবার গুণাগুণে ৬৭তম, ইন্টারনেট সম্পর্কিত নিরাপত্তায় ৭৫তম এবং ইন্টারনেট অবকাঠামোতে ৮৫তম বৈশ্বিক অবস্থানে আছে বাংলাদেশ। আর ইন্টারনেটের গতি, স্থিতিশীলতা ও প্রবৃদ্ধির হিসাবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মধ্যে বাংলাদেশ ৬৭তম অবস্থানে রয়েছে বলে জানিয়েছে ডিকিউএল।

বিশ্বজুড়ে প্রধানত দু’ধরনের ইন্টার‌নেট পরিষেবা ব্যবহৃত হয়, যেমন: ব্রডব্যান্ড সংযোগ ও মোবাইল। বাংলাদেশের ব্রডব্যান্ড সংযোগের মান মোবাইল সংযোগের তুলনায় বেশ ভালো। ব্রডব্যান্ড সেবার দিক থেকে বিশ্বে ৭৮তম অবস্থানে আছে দেশটি। এছাড়া মোবাইল পরিষেবার দিক থেকে বাংলাদেশ আছে ১১৫তম স্থানে।

ওআ/

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ