spot_img
30 C
Dhaka
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

১লা অক্টোবর, ২০২২ইং, ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯বাংলা

টেস্ট ক্রিকেট ছাড়লেন রুবেল হোসেন

- Advertisement -

ক্রীড়া ডেস্ক, সুখবর বাংলা: লাল বলের ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়ে দিলেন বাংলাদেশের অভিজ্ঞ পেসার রুবেল হোসেন। নিজের সিদ্ধান্তের কথা নির্বাচকদের আগেই মৌখিকভাবে জানিয়েছিলেন রুবেল। ৩২ বছর বয়সী পেসার সোমবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানান, বিসিবিতে চিঠি দিয়ে এ দিন তিনি অবসরের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়েছেন আনুষ্ঠানিকভাবে।

২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর দিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে রুবেলের আবির্ভাব। অভিষেকে টেস্টে সেন্ট ভিনসেন্ট প্রথম ইনিংসে দারুণ বোলিংয়ে উইকেট নেন ৩টি। তবে সেই শুরুটা আর ধরে রাখতে পারেননি তিনি। পরের ৬ ইনিংস মিলিয়ে উইকেট ছিল স্রেফ ১টি!

ক্যারিয়ারের পঞ্চম টেস্টে ২০১০ সালে হ্যামিল্টনে স্বাদ পান তিনি ইনিংসে ৫ উইকেটের। তবে ২৯ ওভারে রান খরচ করেন ১৬৬! সেটিই প্রথম আর শেষ, আর কখনও ৫ উইকেট পাওয়া হয়নি তার।

সকালে রুবেল নিজেই তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে এক পোস্ট দিয়ে নিশ্চিত করে জানালেন তার অবসরের কথা। সেখানে বলেন, লাল বলে তরুণদের সুযোগ দিতেই এমন সিদ্ধান্ত তার। তবে টি-টোয়েন্টি আর ওয়ানডে চালিয়ে যাবেন তিনি।

বাংলাদেশের হয়ে ২৭ টেস্ট ম্যাচ খেলার তার ক্যারিয়ারের অন্যতম অর্জন-এমন কথাও শোনালেন রুবেল। জানালেন তরুণরা যদি বেশি সুযোগ পায় সেক্ষেত্রে দেশের পাইপলাইন আরো মজবুত হবে। যারা রুবেলের পাশে ছিলেন এ সময় তাদেরকেও ধন্যবাদ জানিয়েছেন বাগেরহাটের এ পেসার।

সেই পোস্টে রুবেল লিখেছেন, ‘আসসালামু আলাইকুম আমি একটা বিষয় একটু জানাতে চাই! আজকে বিসিবিতে অফিশিয়ালি চিঠি দিয়ে টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসরের সিদ্ধান্ত  নিলাম…. বাংলাদেশ জাতীয় দলের পাইপলাইন শক্তিশালী করার ক্ষেত্রে লংগার ভার্সন টুর্নামেন্টগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। আমি মনে করি এই টুর্নামেন্টগুলোতে তরুণ পেসাররা যত বেশি সুযোগ পাবে, আমাদের পাইপলাইন তত মজবুত হবে। তাই তরুণ ক্রিকেটারদেরকে সুযোগ করে দেয়ার জন্য আমি লাল বলের ক্রিকেট থেকে অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

তারকা পেসার রুবেল আরও যোগ করেন, ‘বাংলাদেশের ২৭টি টেস্ট ম্যাচ খেলার সৌভাগ্য হয়েছে আমার। যা আমার ক্যারিয়ারের অন্যতম অর্জন। আমি বিশ্বাস করি, লাল বলের ক্রিকেটে আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেটের এই পথচলায় আমাকে যারা সহযোগিতা করেছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। আশা করছি সামনের দিনগুলোতে আপনাদের পাশে পাবো। টেস্ট থেকে বিদায় নিয়েছি। তবে, ওয়ানডে এবং টি২০ ফরম্যাটে বাংলাদেশ জাতীয় দলকে আমার আরো কিছু দেয়ার মত সামর্থ্য আছে। তাই ডিপিএল, বিপিএলসহ অন্যান্য সাদা বলের টুর্নামেন্টে আমি নিয়মিত খেলা চালিয়ে যাবো। আমার জন্য দোয়া করবেন। সাদা বলের বাকি জীবনে আপনাদের যেন রঙিন স্বপ্ন উপহার দিতে পারি।’

শেষ এক বছর ধরে জাতীয় দলের হয়ে কোনো ম্যাচেই তাকে বল হাতে মাঠে দেখা যায়নি। সর্বশেষ গেল বছর নিউজিল্যান্ডে জাতীয় দলের জার্সিতে খেলেছিলেন এ পেসার, এরপর আর দেখা যায়নি তাকে।

আরো পড়ুন:

নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ: স্বপ্নের ট্রফি জয়ের ফাইনাল আজ

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ