spot_img
27 C
Dhaka
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

৫ই অক্টোবর, ২০২২ইং, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯বাংলা

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ: মাহমুদউল্লাহকে বাদ দিয়ে বাংলাদেশের দল ঘোষণা

- Advertisement -

ক্রীড়া প্রতিবেদক, সুখবর বাংলা: নানান জল্পনা-কল্পনার পর অবশেষে সাবেক অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে বাদ দিয়েই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ। বুধবার দুপুরে মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামের সংবাদ সম্মেলন কক্ষে বিসিবির প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ১৫ সদস্যের মূল স্কোয়াড এবং স্ট্যান্ডবাই হিসেবে চার জনের নাম ঘোষণা করেন।

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল ঘোষণার আগেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। স্কোয়াড ছাপিয়ে জাতীয় প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছিল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ দলে থাকবেন কি না। মাস দুয়েক আগেও ছিলেন টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে জাতীয় দলের অধিনায়ক। তবে জিম্বাবুয়ে সিরিজের আগে নেতৃত্ব হারানোর পর থেকে দলে তার জায়গাটা বেজায় নড়বড়ে ছিল। শেষমেশ উইকেটকিপার ব্যাটার মুশফিকুর রহিমের টি-টোয়েন্টি থেকে অবসরের পর থেকেই মাহমুদউল্লাহকে নিয়ে জল্পনা আরও বাড়ে।

সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে একটি অর্ধশতক পেয়েছিলেন তখনকার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। এর পর থেকেই এ সংস্করণে ছন্দে নেই তিনি। বিশ্বকাপের পর থেকে এখন পর্যন্ত ১১ ম্যাচ খেলে মাত্র ১৬.৫৪ গড় ও ১০২.৮২ স্ট্রাইক রেটে ব্যাটিং করেছেন এ ব্যাটসম্যান। এশিয়া কাপের দুই ম্যাচে ২০ পেরিয়েছেন, তবে এক ম্যাচে স্ট্রাইক রেট ছিল ৯২.৫৯, অন্যটিতে ১২২.৭২। ২০০৭ সাল থেকে এ সংস্করণে খেলে আসা মাহমুদউল্লাহ এখন পর্যন্ত খেলেছেন ১২১টি ম্যাচ, বাংলাদেশের হয়ে যেটি সর্বোচ্চ। বিশ্বকাপ দলে না পাওয়াতে এ সংস্করণে ভবিষ্যৎটা অনিশ্চিতই হয়ে পড়ল তাঁর। সর্বশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজেও ছিলেন অধিনায়ক।

টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ কয়েক দিন আগেই বলেছেন, মাহমুদউল্লাহর সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স তাদের প্রত্যাশা পূর্ণ করতে পারেনি। যদিও বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছিলেন, মাঠ থেকেই রিয়াদকে বিদায় জানাতে চান তারা। তবে শেষমেশ তাকে বাদ দিয়েই দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

মাহমুদউল্লাহ ছাড়াও আরও বাদ পড়েছেন দীর্ঘদিন পর দলে ফেরা এনামুল হক বিজয়। সম্প্রতি বেশ কয়েকটি সিরিজ ও সবশেষ এশিয়া কাপের দলে থাকলেও তেমন আস্থার প্রতিদান দিতে পারেননি এ ওপেনার।

চোট কাটিয়ে দলে ফিরেছেন লিটন দাস, নুরুল হাসান, ইয়াসির আলী ও হাসান মাহমুদ। লিটন জিম্বাবুয়ে সফরে হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পেয়েছিলেন, ওই সফরেই আঙুল ভেঙেছিল নুরুল হাসানের। আর ইয়াসির আলী চোট পেয়েছিলেন সর্বশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে, টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে প্রস্তুতি ম্যাচে। চোটের কারণে এশিয়া কাপের দলে ছিলেন না তিনজনের কেউই। এশিয়া কাপের আগে অনুশীলনে অ্যাঙ্কেলে চোট পেয়ে টুর্নামেন্ট মিস করেন হাসান মাহমুদ।

এছাড়া বিশ্বকাপের দলে সুযোগ দেয়া হয়েছে সাব্বির রহমান এবং মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকেও। তবে চমক হিসেবে থাকছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ধারাবাহিকভাবে ব্যর্থ এ ক্রিকেটারের ওপর আবারও আস্থা রাখল বোর্ড।

অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপে যথারীতি অধিনায়কের দায়িত্বে থাকছেন সাকিব আল হাসান। এছাড়া তার ডেপুটি হিসেবে থাকছেন ইনজুরি কাটিয়ে দলে ফেরা নুরুল হাসান সোহান।

আগামী মাসে শুরু হচ্ছে আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। এবার অস্ট্রেলিয়ায় বসবে এই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের অষ্টম আসর।

বাংলাদেশের স্কোয়াড

লিটন দাস, মেহেদী হাসান মিরাজ, সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান (উইকেটরক্ষক), মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, ইয়াসির আলী রাব্বি, সাব্বির রহমান, মুস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, এবাদত হোসেন, হাসান মাহমুদ, নাসুম আহমেদ এবং নাজমুল হোসেন শান্ত।

স্ট্যান্ডবাই : শরিফুল ইসলাম, শেখ মেহেদী, রিশাদ হোসেন ও সৌম্য সরকার।

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ