spot_img
26 C
Dhaka

২৬শে নভেম্বর, ২০২২ইং, ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

সর্বশেষ
***বিজয়ের মাসে ২টি প্রদর্শনী নিয়ে আসছে বাতিঘরের নাটক ‘ঊর্ণাজাল’***মহিলা আওয়ামী লীগের নতুন সভাপতি চুমকি, সাঃ সম্পাদক শবনম***সরকার নারীদের উন্নয়নে কাজ করে চলেছে : মহিলা আ. লীগের সম্মেলনে শেখ হাসিনা***তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া কোনো নির্বাচন হতে দেয়া হবে না : কুমিল্লায় মির্জা ফখরুল***দেশে আর ইভিএমে ভোট হতে দেওয়া হবে না : রুমিন ফারহানা***রংপুর সিটি নির্বাচনে অপ্রীতিকর কিছু ঘটলে ভোটগ্রহণ বন্ধ করে দেয়া হবে : নির্বাচন কমিশনার***সৌদি আরবে চলচ্চিত্র উৎসবে সম্মাননা পাচ্ছেন শাহরুখ খান***ভূমি অফিসে সরাসরি ঘুস গ্রহণের ভিডিও ভাইরাল***আজ মাঠে নামলেই ম্যারাডোনার যে রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলবেন মেসি***স্বাধীনতা কাপের সেমিফাইনালে শেখ রাসেল

জয়ের কৃতিত্ব তাসকিন ও ফিল্ডারদের দিলেন সাকিব

- Advertisement -

ক্রীড়া ডেস্ক, সুখবর বাংলা: বাংলাদেশের হয়ে সব টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলেছেন সাকিব আল হাসান। কিন্তু এর আগে বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে কখনো বাংলাদেশের জয়ের সাক্ষী হতে পারেননি।নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে আজকের জয়ে দীর্ঘদিনের অপেক্ষার অবসান হলো। সে জন্যই কি না, ম্যাচ শেষে সবচেয়ে বেশ নির্ভার মনে হচ্ছিল বাংলাদেশ অধিনায়ককে।

এই জয় যে কতটা দরকার ছিল বাংলাদেশ দলের জন্য, সেটিও বোঝা গেল সাকিবের কথায়। ম্যাচ শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের সঞ্চালক নিউজিল্যান্ডের সাবেক ক্রিকেটার সাইমন ডুল প্রসঙ্গটা তুলতেই সাকিব বললেন, ‘হ্যাঁ, একটি জয় পাওয়া খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। ২০০৭ থেকে আমি সব বিশ্বকাপ খেলেছি। কিন্তু জয় পাইনি। এটি আমাদের মাথায় ছিল। ১৫৫ রানের মতো হলে ভালো হতো। নিয়মিত উইকেট হারিয়েছে যে কারণে সুবিধা করতে পারেনি। ১০ রানের মতো কমই হয়েছে। তবে পেসাররা ভালো করেছে। তাসকিন আমাদের জন্য খুবই ভালো এবং অভিজ্ঞ একজন বোলার।’

বাংলাদেশ ম্যাচের লাগাম হাতে নেয় ডাচদের ইনিংসের চতুর্থ ওভারে। থ্রো থেকে দুটি রান আউট আদায় করে নেয়। ইয়াসির আলী স্লিপে তাসকিনের প্রথম বলেই দারুণ এক ক্যাচ ধরেছেন। আউটফিল্ডেও রান বাঁচিয়েছেন ফিল্ডাররা। জয়ের কৃতিত্ব তাই ফিল্ডারদের দিতে ভোলেননি সাকিব, ‘দলের অধিকাংশ ফিল্ডিংই আগ্রাসী ও দ্রুতগতির ছিল। ফিল্ডিংয়ে আমরা ৫-১০ রানের মতো বাঁচিয়েছি। যা পার্থক্য গড়ে দিয়েছে।’

‘এবার ভালো করার সুযোগ আছে। অন্য বারের রেকর্ড ছাড়িয়ে যেতে পারি।’ নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত টি-২০ বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচের আগে কথাটা বলেছিলেন সাকিব। টি-২০ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের রেকর্ড মানে তো পরাজয়। মূল পর্বে একমাত্র জয় ২০০৭ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে।

দুটি জয় পেলেই তাই পূর্বের রেকর্ড ভেঙে যাবে। তবে বাংলাদেশ দলের লক্ষ্য যে আরও বড় সেই ইঙ্গিত সাকিবের রেকর্ড ভাঙা বার্তায় ছিল। ভালো কিছু করার লড়াইয়ে দরকার ছিল মোমেন্টাম। যা সোমবার ৯ রানে ডাচদের হারিয়ে পেয়েছে বাংলাদেশ।

এম/

আরো পড়ুন:

‘নো’ বল আর ফ্রি হিট বোল্ডে আইসিসির নিয়ম কী বলে

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ