spot_img
20 C
Dhaka

৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২২ইং, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

চঞ্চল চৌধুরী: পথের ক্লান্তি ভুলে এগিয়ে চলার দুই যুগ

- Advertisement -

সাইদ মাহবুব, সুখবর বাংলা: ‘‘পথের ক্লান্তি ভুলে স্নেহভরা কোলে তব, মা গো, বলো কবে শীতল হবো’’ – হেমন্ত মূখার্জিক বিখ্যাত এই গানের সাথে ২০০৪ সালের টিভি পর্দায় প্রচার হতো এমনই একটি বিজ্ঞাপন। সেখানে দেখা যায় একটি ছেলে তাঁর মায়ের জন্য মুঠোফোন নিয়ে যাচ্ছে। আজকের অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী আলোচনায় এসেছিলেন ওই একটি বিজ্ঞাপন দিয়ে এমনটা বলাই যায়।

তিনি এই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমেই সারাদেশে পরিচিতি লাভ করেছিলেন। আস্তে আস্তে তিনি তাঁর ভিন্ন ধারার অভিনয় দিয়ে বাংলা ভাষাভাষী মানুষের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেন। চঞ্চল চৌধুরী ১৯৭৪ সালের ১লা জুন পাবনায় জন্মগ্রহন করেন। তাঁর পারিবারিক নাম সুচিন্ত চৌধুরী।

গ্রামের পড়ালেখা শেষে তিনি ঢাকা ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি হন। তখন থেকেই তিনি ঢাকার নামকরা নাট্য সংগঠন ‘আরন্যক’ এর সদস্য। আরণ্যকের হয়ে তিনি প্রথম অভিনয় করেন ‘কালো দৈত্য’ নাটকে। তারপর সংক্রান্তি, রাঢ়াঙ, শত্রুগণ… তালিকাটা কেবল দীর্ঘ হয়েছে।

বাংলাদেশের টিভি নাটকে তিনি তাঁর নিজের একটা নিজস্ব ধারা তৈরি করেছেন। সিরিয়াস নাটকে যেমন সাবলিল তেমনি কমেডি নাটকেও অসাধারন। অসংখ্য নাটক তিনি দর্শকদের উপহার দিয়েছেন। যেমন- গরুচোর,পাতাল পুরির গল্প, পাত্রি চাই,সাকিন সারিসুরি,পত্রমিতালি, কথাদিলাম তো ইত্যাদি।

বিজ্ঞাপনেও তার উপস্থিতি প্রসংশনীয়। যতগুলি বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন, প্রতিটি বিজ্ঞাপনই দর্শকের মনে দাগ কেটেছে। ছোট পর্দার পাশাপাশি বড় পর্দায়ও তিনি অভিনয় করছেন দাপটের সাথে। তার সবগুলি সিনেমাই ব্যবসা সফল হয়েছে।

এ পর্যন্ত তার অভিনিত ছবিগুলি হলো-রূপকথার গল্প (২০০৬), মনপুরা (২০০৯), টেলিভিশন (২০১২), আয়নাবাজি (২০১৬), দেবী (২০১৮) এবং হাওয়া ও দুই নয়নের আলো (২০২২) এই ছবিগুলিতে তিনি অভিনয়ের জন্য সমালোচিতভাবে প্রশংসিত। এ বছর “দুই দিনের দুনিয়া’ এবং “হাওয়া” নামে যে ছবি দুটি মুক্তি পেয়েছে, এতে তিনি ভিন্ন মাত্রার চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

‘দুই দিনের দুনিয়া’র মাধ্যমে তার কাজে যুক্ত হচ্ছে আরেকটি ভিন্নধর্মী চরিত্র। এখানে তিনি একজন ট্রাকড্রাইভারের ভূমিকায় অভিনিয় করেছেন। ‘হাওয়া’তে তিনি একজন মাঝি।

ওটিটি প্ল্যাট ফর্মে ‘কারাগার’ নামে তিনি একটা সিরিজ করেছেন, যেখানে তিনি কোনো ডাইলগই দেননি। কিন্তু তাঁর সে অভিনয় দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিদেশের মাটিতেও সুনাম কুড়িয়েছেন।

মঞ্চ, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র মিলিয়ে দুই যুগের ক্যারিয়ারে নিজেকে দিন দিন ছাড়িয়ে যাচ্ছেন চঞ্চল।

চলচ্চিত্রে তার অভিনয়ের জন্য সমালোচিতভাবে প্রশংসিত। তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেতার জন্য দুটি বাংলাদেশ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেতার জন্য তিনটি মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার পেয়েছেন।

আরো পড়ুন:

কবীর সুমন: গানওয়ালা এক নাগরিক কবিয়াল

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ