spot_img
27 C
Dhaka

২৯শে নভেম্বর, ২০২২ইং, ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

গাজীপুরে দুই মহাসড়কে নেই কোনো যানজট

- Advertisement -

নিজস্ব প্রতিবেদক, সুখবর বাংলা: গাজীপুরের দুই মহাসড়ক ঢাকা-টাঙ্গাইল ও ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অন্যান্য দিনের চেয়ে আজ শুক্রবার সকালের দৃশ্য অনেকটাই আলাদা। গত দুই দিন এই দুই মহাসড়কে থেমে থেমে যানজট থাকলেও আজ সকালে কোথাও যানজট দেখা যায়নি। তবে দুই মহাসড়কেই যানবাহনের ব্যাপক চাপ আছে। যানজটে আটকা না পড়ায় ঘরমুখো মানুষ অনেকটা স্বস্তিতেই বাড়ি ফিরছেন। সড়কে থাকা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ধারণা, আজ বিকেলের দিকে যানবাহনের চাপ আরও বাড়বে।

গাজীপুরের বিভিন্ন বাসস্টেশনে ঘরমুখো মানুষদের বাসের জন্য অপেক্ষায় থাকতে দেখা গেছে। যাঁরা বাস পাচ্ছেন না তারা ভিন্ন উপায়ে—ট্রাক, পিকআপ ও মোটরসাইকেল ভাড়া করে যাচ্ছেন।

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক

অন্যান্য বছর ঈদ মৌসুমে গাজীপুরের শিল্পকারখানা ছুটি ঘোষণা করা হলে মহাসড়কে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। যানজটে আটকা পড়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা সড়কে সময় পার করেন মানুষ। কিন্তু ঈদের আর মাত্র দুই দিন বাকি থাকলেও মহাসড়কের সেই চিরচেনা যানজট নেই। তবে স্বাভাবিক সময়ে যে পরিমাণ যানবাহন চলাচল করে এখন তার সংখ্যা বেড়েছে কয়েকগুণ। এ কারণে কিছু কিছু জায়গায় থেমে থেমে যানবাহন চলাচল করছে। সেসব জায়গা আবার মাঝেমধ্যে ফাঁকাও হয়ে যাচ্ছে। ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের এসব জায়গা হচ্ছে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার চন্দ্রা ত্রিমোড়, কালিয়াকৈর-নবীনগর সড়কে নন্দন পার্ক এলাকা, কবিরপুর ও জিরানী এলাকা।

আজ সকালে চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকায় কথা হয় বগুড়া সদর এলাকার খায়রুল ইসলামের সঙ্গে। তিনি বলেন, বাসের চালক ও সহযোগীরা ভাড়া বৃদ্ধি করায় কিছুটা বিপাকে পড়তে হয়েছে। এখানে ভাড়া যাতে ইচ্ছামতো না নিতে পার তার জন্য কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।

রংপুরের পীরগঞ্জ এলাকার বাসিন্দা ও চন্দ্রা ডিভাইন টেক্সটাইল কারখানার শ্রমিক শওকত হোসেন বলেন, অন্য সময় বাসে ৪০০ টাকা ভাড়া কিন্তু এখন ভাড়া চাচ্ছে ১ হাজার টাকা। যার যেমন খুশি ভাড়া আদায় করছে। ভাড়া নিয়ে তাদের সঙ্গে কিছু বলতে গেলেই ঝগড়া–বিবাদ করতে হচ্ছে।

কোনাবাড়ি (সালনা) হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফিরোজ হোসেন বলেন, চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকায় বাসস্টেশন হওয়ায় এখানে সব সময় যানবাহনের চাপ থাকে। আজ সকালেও চন্দ্রা মোড়ে যানবাহনের যথেষ্ট চাপ আছে, তবে যানজট নেই। যেসব বাস এখানে দাঁড়িয়ে থাকে সেগুলো যাত্রী উঠানোর জন্যই মূলত দাঁড়িয়ে থাকে।

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক

ঈদযাত্রার আগে বড় আশঙ্কা ছিল ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে বিআরটি প্রকল্পের কাজের কারণে এবার ভয়াবহ যানজটের সৃষ্টি হবে। আর বৃষ্টি হলে যানজটের ভোগান্তি আরও বাড়ত। তবে এসব আশঙ্কা দূর করে আজ সকাল পর্যন্ত স্বাভাবিকভাবেই যানবাহন চলাচল করছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরের পর ওই সড়কে যানবাহনের ব্যাপক চাপ ছিল, তবে সন্ধ্যার পর তা আবার স্বাভাবিক হয়ে যায়। আজ সকালেও মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে যানবাহনের চাপ থাকলেও কোথাও যানজট নেই।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপকমিশনার আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেন, এখন পর্যন্ত সবার সহযোগিতায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যান চলাচল একেবারেই স্বাভাবিক আছে। মহাসড়কের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অতিরিক্ত ট্রাফিক পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ