spot_img
26 C
Dhaka

৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ইং, ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

সর্বশেষ

গর্ভাবস্থায় পেস্তা বাদাম খাওয়ার উপকারিতা

- Advertisement -

লাইফস্টাইল ডেস্ক, সুখবর বাংলা: গর্ভকালীন সময় প্রতিটি নারীর জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এসময় মায়ের জীবনে একটি অদ্ভুত অনুভূতির সৃষ্টি করে। এসময় প্রত্যেক মহিলা অত্যন্ত সচেতন হয়ে যান তার খাদ্য তালিকা নিয়ে। সন্তানকে সঠিক ভাবে প্রতিপালন ও পুষ্টি প্রদান করতে প্রত্যেক গর্ভবতী মায়েদের উচিত তখন সুষম খাদ্য গ্রহণ করা।

গর্ভাবস্থায় মা এবং সন্তানের উপকারিতার জন্য গর্ভবতী মায়েদের খাদ্য তালিকায় ড্রাই ফ্রুটস, বাদাম থাকার পরামর্শ দিয়ে থাকেন ডাক্তাররা। পেস্তাচিও বা পেস্তা বাদামের স্বাস্থ্য উপকারিতাগুলি বিভিন্ন ভাবে মানুষকে সরবরাহ করে থাকে।

গর্ভাবস্থায় পেস্তা বাদাম খাওয়াটা কি নিরাপদ?

গর্ভবস্থায় পরিমিত পরিমাণে পেস্তা বাদাম খাওয়াটা নিরাপদ হিসেবে বিবেচিত। তবে অন্তঃসত্ত্বাকালে খুব বেশি পরিমাণে এগুলি খেলে তার পরিণতিতে বেশ কয়েকটি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। আর সেই কারণেই এটি সংযমের সাথে খাওয়া উচিত। এমন অনেক পুষ্টিগুণ আছে যা এই বাদাম থেকে পাওয়া যায়, আর সেগুলি সম্পর্কে জানলে তা আপনার গর্ভাবস্থাকালীন ডায়েটের মধ্যে এগুলিকে সঠিক ভাবে অন্তর্ভূক্ত করার ক্ষেত্রে আপনাকে সহায়তা করবে।

পেস্তা বাদামের পুষ্টিমান

শক্তির একটা সমৃদ্ধ উৎস হওয়া সত্ত্বেও, পেস্তা বাদামগুলি কম ক্যালোরি সমন্বিত এবং অন্যান্য পুষ্টি পদার্থে পরিপূর্ণ। এগুলির পুষ্টি মান উচ্চ হওয়ায়, মোটামুটি প্রায় ৩০ গ্রাম এই বাদামের মধ্যে ৬ গ্রাম মত প্রোটিন, ২.৮ গ্রাম মত ফাইবার এবং মোট ফ্যাট ১২.৭ গ্রাম মত থাকতে দেখা যায়। আর প্রতি ১০০ গ্রাম বাদামের মধ্যে উপস্থিত ক্যালোরির পরিমাণ প্রায় ৫০০.

গর্ভবতী পেস্তা বাদাম খাওয়ার উপকারিতাগুলি

গর্ভবস্থায় পেস্তার একটি পরিবেশনই আপনার প্রতিদিনের আয়রণ বা লোহা, ক্যালসিয়াম, ফোলেট এবং পটাসিয়ামের প্রয়োজনীয় প্রায় সমস্ত চাহিদাই পূরণ করতে পারে। অন্তঃসত্ত্বাকালে আপনার গর্ভস্থ শিশুর বৃদ্ধি ও বিকাশের জন্য এগুলির সমস্তই প্রয়োজনীয়।

>> পেস্তা বাদামগুলি প্রোটিনের একটা সমৃদ্ধ উৎস যা গর্ভস্থ শিশুর মাংসপেশী এবং কলাগুলির বিকাশের জন্য আবশ্যক।

>> এর মধ্যে থাকে মনোআনস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড, যা ভাল কোলেস্টেরল মাত্রাকে বাড়াতে এবং খারাপ কোলেস্টেরল মাত্রাকে হ্রাস করতে সাহায্য করে, ফলে লিপিড স্তরের ভারসাম্য বজায় থাকে।

>> এর মধ্যে উপস্থিত ভিটামিন E, A, ক্যারোটিন এবং পলিফেনলিক যৌগের মত অ্যান্টঅক্সিডেন্টগুলি আপনার অনাক্রম্যতাকে বাড়িয়ে তোলে।

>> পেস্তা বাদামে থাকা কপার উপাদানটি গর্ভাবস্থায় দেহে লোহিত রক্ত কণিকার সঠিক মাত্রা বজায় রাখতে সহায়তা করে।

>> এর প্রদাহবিরোধী বৈশিষ্ট্যটি গর্ভাবস্থায় অস্থি সন্ধির যন্ত্রণা এবং ফুলে যাওয়ার সাথে মোকাবিলা করতে সাহায্য করে।

>> গর্ভবতী মহিলাদের মধ্যে খুব সাধারণ একটি সমস্যা হিসেবে দেখা দেওয়া কোষ্ঠকাঠিন্য। এই কোষ্ঠকাঠিন্যকে কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করে পেস্তা এর মধ্যস্থ ফাইবার বা তন্তু উপাদানটি।

>> পেস্তার মধ্যে থাকা ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড গর্ভস্থ শিশুর ব্রেনের বিকাশকে অনেক সহজতর করে।

>> এর মধ্যে বেশ কয়েকটি ভিটামিন B-কমপ্লেক্স ভিটামিন থাকে যেমন রাইবোফ্লাভিন, নিয়াসিন, থিয়ামিন, ভিটামিন B6 এবং ফোলেট যা ভ্রূণের বিকাশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

এগুলির পাশাপাশি পেস্তা বাদাম আবার লিভারের অসুখ, জন্ডিস এবং অ্যানিমিয়া প্রতিরোধেও সহায়তাকারী।

এম এইচ/

আরও পড়ুন:

মুসাম্বি লেবুর শরবত পানের যত উপকারিতা

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ