spot_img
20 C
Dhaka

৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ইং, ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

সর্বশেষ

গর্ভাবস্থায় পরিচর্যা

- Advertisement -

আশা আক্তার, সুখবর বাংলা: আপনার শরীরের ভেতরে একটি প্রাণ বেড়ে উঠছে, কিছুদিন পরেই আপনি তাকে নিজের দুই হাত দিয়ে স্পর্শ করবেন, বুকে জড়িয়ে ধরবেন, তার চোখ, তার কান, তার নাকে হাত বোলাবেন। এই চিন্তাগুলো নিয়েই একজন মা তার গর্ভকালীন সময় পার করেন।

গর্ভবতী মায়েদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় গর্ভবতী মা ও পরিবারের সদস্যদের যে সকল বিষয় জানা উচিত-

চেকআপ:

গর্ভধারণের পরপরই একজন গর্ভবতী মহিলার গর্ভকালীন যত্নের জন্য স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যাওয়া অথবা ডাক্তারের শরণাপন্ন হওয়া উচিত। পুরো গর্ভকালীন সময় জুড়ে গর্ভবতী মায়েদের ১৪ বার চেকআপ করার কথা থাকলেও আমাদের দেশে অন্তত ৪ বার চেকআপ করতে যাওয়া বাধ্যতামূলক। এছাড়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা গর্ভবতী মাকে গর্ভকালীন কমপক্ষে ৪ বার চেকআপের জন্য স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যাওয়ার সুপারিশ করেছেন।

গর্ভধারণের শুরু থেকে প্রসব পর্যন্ত মোট ৪ বার সেবা নিশ্চিত করা হয়। ১ম থেকে ৪র্থ মাসের মধ্যে প্রথমবার, ৬ষ্ঠ মাসে দ্বিতীয়বার, ৮ম মাসে তৃতীয়বার, ৯ম মাসে চতুর্থবার সেবা নিশ্চিত করা অত্যন্ত জরুরি।

গর্ভকালীন সেবা/চেকআপে যা যা করা হয়:

  • গর্ভকালীন ইতিহাস নেয়া হয়
  • শারীরিক পরীক্ষা করা
  • স্রাব পরীক্ষা
  • মাকে পরামর্শ প্রদান করা
  • স্বাস্থ্য শিক্ষা

এছাড়া ৫ থেকে ৮ মাসের মধ্যে ২টি টিটি টিকা নিতে হয়।

খাবার:

এ সময় মা ও গর্ভের শিশু দু’জনের সুস্থতার জন্য একটু বেশি পরিমাণে পুষ্টিকর খাবার খাওয়া প্রয়োজন। বিশেষ করে শিশু বেড়ে ওঠার জন্য আমিষ জাতীয় খাবার যেমন- মাছ, মাংস, ডিম, ডাল, দুধ বেশি করে খেতে হবে। এছাড়া সবুজ ও রঙিন শাকসবজি, তরকারি ও ফল ছাড়াও যেসব খাবারে আয়রন বেশি আছে যেমন কাঁচাকলা, পালং শাক, কচু, কচুশাক, কলিজা ইত্যাদি বেশি বেশি খেতে হবে। আর বেশি পরিমাণে পানি (দিনে ৮/১০ গ্লাস) খেতে হবে এবং রান্নায় আয়োডিনযুক্ত লবণ ব্যবহার করতে হবে।

অনেকেরই ধারণা মা বেশি খেলে পেটের বাচ্চা বড় হয়ে যাবে এবং স্বাভাবিক প্রসব হবে না। অনেকে গর্ভবতী মাকে বিশেষ কিছু খাবার খেতে নিষেধ করে। যেমন- দুধ, মাংস, কিছু কিছু মাছ ইত্যাদি। এগুলো খাওয়া তো নিষেধ নয়ই, বরং মা বেশি খেলে মায়ের ও বাচ্চার স্বাস্থ্য ভালো থাকবে। মা প্রসবের ধকল সহ্য করার মতো শক্তি পাবেন এবং মায়ের বুকে বেশি দুধ তৈরি হবে।

বিশ্রাম:

এ সময় দিনের বেলা দুপুরে খাবারের পরে কমপক্ষে দু-ঘণ্টা ঘুম বা বিশ্রাম এবং রাতে কমপক্ষে আট ঘণ্টা ঘুম আবশ্যক। ঘুমানো বা বিশ্রামের সময় বাঁ-কাত হয়ে শোয়া ভালো। এতে করে গর্ভের শিশুর শারীরিক বিকাশে পরিপক্কতা পায়।

কাজকর্ম:

এ সময় স্বাভাবিক কাজকর্ম করা শরীরের জন্য ভালো। কিন্তু কিছু কিছু ভারি কাজ যেমন: কাপড় ধোয়া, পানি ভর্তি কলস কাঁখে নেয়া, ভারি বালতি বা হাঁড়ি তোলা উচিত নয়। এটাও উচিত নয় যে গর্ভবতী মায়েদের অসুস্থ ভেবে সব রকম কাজকর্ম থেকে বিরত রাখা।

পরিধেয়:

গর্ভবতী মায়েদের অবশ্যই পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন, আরামদায়ক সুতি কাপড়, সহজে পরিধানযোগ্য ও ঢিলেঢালা পোশাক পরা উচিত। সঠিক মাপের এবং নরম জুতো পরতে হবে। এক্ষেত্রে অবশ্যই হিল পরা উচিত নয়।

পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা:

এ সময় নিয়মিত প্রতিদিন সাবান দিয়ে ভালোভাবে গোসল করতে হবে এবং হাত-পায়ের নখ কেটে ছোট রাখতে হবে। গর্ভকালে মায়েদের দাঁতগুলো বেশ নরম হয়ে যায়, তাই দাঁত ও মাড়ির বিশেষ যত্ন নিতে হবে। এ সময় শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা স্বাভাবিকের চেয়ে কম থাকে। তাই ইনফ্লুয়েঞ্জা, হাম, চিকেন পক্স ইত্যাদি ছোঁয়াচে রোগে আক্রান্ত রোগী থেকে দূরে থাকতে হবে।

ভ্রমণ:

গর্ভকালীন প্রথম তিন মাস ও শেষ তিন মাস দীর্ঘ ভ্রমণে না যাওয়াই ভালো। উঁচু-নিচু পথ কিংবা ঝাঁকির আশঙ্কা আছে এমন যানবাহনে ভ্রমণ করা স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর। সকালে ও বিকেলে কিছু সময়ের জন্য স্বাস্থ্যকর ও মনোরম পরিবেশে ভ্রমণ গর্ভবতী মায়েদের জন্য ভালো, এতে শরীর সুস্থ ও মন প্রফুল্ল থাকে। তাই ফুলের বাগান, লেকের পাড়, পার্ক- এসব স্থানে ভ্রমণ করা উচিত।

বিশেষ সতর্কতা:

অতিরিক্ত আবেগ, মানসিক চাপ, দুশ্চিন্তা, ভয়, রোগ-শোক ইত্যাদি গর্ভবতী মায়ের স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর, তাই এসব এড়িয়ে ভালো চিন্তা করতে হবে। প্রথম তিন মাস ও শেষ তিন মাস স্বামীর সহবাস থেকে বিরত থাকতে হবে। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবন করা যাবে না। পানিশূন্যতা রোধে স্বাভাবিকের চেয়ে অধিক পরিমাণে পানি পান করতে হবে। সব ধরনের ঝুঁকি এড়াতে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া আবশ্যক।

একজন গর্ভবতী মায়ের গর্ভকালীন নিয়মিত স্বাস্থ্যসেবা, নিরাপদ প্রসব এবং প্রসব-পরবর্তী স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করা গর্ভবতীর স্বামীসহ পরিবারের সকলের সমান দায়িত্ব।

এম এইচ/

আরো পড়ুন:

৫০০ মডেল সেবাকেন্দ্র চালু, বছরে ১২ লাখ ডেলিভারির টার্গেট

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ