spot_img
29 C
Dhaka
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

৩রা অক্টোবর, ২০২২ইং, ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯বাংলা

কোমল পানীয়ের ক্ষতিকর দিক

- Advertisement -

লাইফস্টাইল ডেস্ক, সুখবর বাংলা: আজকাল প্রচণ্ড গরম পড়েছে। আর এ সময়টাতে সময়ে অসময়ে কোমল পানীয়তে কমবেশি অনেকেই স্বস্তি খোঁজেন। অথচ এর না আছে পুষ্টিগুণ আর না আছে পানিশূন্যতা দূরীকরণের ক্ষমতা। উলটো এর প্রতিটি চুমুকই ক্ষতিকর। চলুন জেনে নেই কোমল পানীয়ের ক্ষতিকর দিকগুলো:

ওবেসিটির কারণ

অধিকাংশ কোমল পানীয়তে প্রচুর চিনি থাকে। এসব দেহে বিরূপ প্রভাব ফেলে। ফলে মোটা হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। খাবারের সঙ্গে ১৭% বেশি ক্যালরি গ্রহণ হয় ঠাণ্ডা পানীয় খেলে। এতে মেদবৃদ্ধির আশঙ্কা থাকে।

ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্স ও টাইপ-২ ডায়াবেটিসের কারণ

ঠাণ্ডা পানীয় খেলে রক্তে শর্করার পরিমাণ বেড়ে যায়। ফলে ইনসুলিন রক্তে গ্লুকোজ পৌছাতে পারেনা। ফলে দেহ ইনসুলিনের প্রতি কম  সংবেদনশীল হয়ে যায়। টাইপ-২ ডায়াবেটিসের আশঙ্কা বহুগুণে বাড়ে।

লেপটিন রেজিসট্যান্স

লেপটিন এমন এক হরমোন যা ক্ষুধা নিয়ন্ত্রণ করে। দেহে লেপটিন রিসেপ্টর ঠিক থাকলে খাদ্য গ্রহণের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে থাকে। কিন্তু অতিরিক্ত সুগার দেহে বাড়তে সেই প্রতিরোধ কমে যায়। এতে খাবার গ্রহণের মাত্রা বাড়তে পারে।

দাঁতের ক্ষতি

কোমল পানীয়তে ফসফোরিক এসিড ও কার্বনিক এসিড থাকে। এটি মুখে আম্লিকতা বাড়ায় যা দাঁতের ক্ষতি করে।

প্রজননক্ষমতা কমায়  

কিছু কোমল পানীয়তে ব্রোমিনাটেড ভেজিটেবিল অয়েল থাকে যা আপনার দেহে বন্ধ্যাত্বের সূচনা করে। ইউরোপ ও জাপানে কোমল পানীয় উৎপাদনে এই উপাদান ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা আছে। তাছাড়া কোমল পানীয়ের নানা রাসায়নিক উপাদান বার্ধক্য ত্বরান্বিত করে।

লিভারের ও কিডনির ঝুঁকি

কোমল পানীয়তে কৃত্রিম মিষ্টি যকৃতের প্রদাহজনিত সমস্যার সৃষ্টি করে। তাছাড়া কিডনিতে পাথর তৈরির কারণ বলেও একে শনাক্ত করা গেছে।

আরও পড়ুন:

যদি লম্বা হতে চান

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ