spot_img
21 C
Dhaka

৯ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ইং, ২৬শে মাঘ, ১৪২৯বাংলা

কানাডার নির্বাচনে চীনের হস্তক্ষেপ! দায়ী কে?

- Advertisement -

ডেস্ক রিপোর্ট, সুখবর ডটকম: সাম্প্রতিক সময়ে, কানাডার নির্বাচনে চীনা হস্তক্ষেপের খবর পাওয়া যায়। যদি এ ঘটনা সত্য হয় তবে এর জন্য দায়ী হচ্ছে, ওয়েই চেঙ্গি নামক একজন ব্যবসায়ী, যিনি টরন্টোতে বসবাসরত চীনা সম্প্রদায়ের একজন বিশিষ্ট সদস্য। কানাডার নির্বাচনে চীনের রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন তিনি এবং তিনি চীনা দূতাবাসের সদস্য হিসেবে কানাডার ১১ জন ফেডারেল প্রার্থীকে অর্থ প্রদানের সাথেও জড়িত। ওয়েই অবশ্য এসব অভিযোগকে অস্বীকার করেছেন।

অন্টারিও এবং ব্রিটিশ কলম্বিয়ার মুদি দোকানের মালামালের জন্য বিখ্যাত, ফুডি মার্ট গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা ওয়েই। এছাড়াও, তিনি অন্টারিও হাউজিং ডেভেলপমেন্ট চায়না সিটির স্থপতি। তিনি কনফেডারেশন অফ টরন্টো চাইনিজ কানাডিয়ান অর্গানাইজেশনস (সিটিসিসিও), কানাডা টরন্টো ফুকিং বিজনেস অ্যাসোসিয়েশন (সিটিএফবিএ), কানাডার মিন বিজনেস অ্যাসোসিয়েশন এবং কানাডা কনফেডারেশন অফ ফুজিয়ান এসোসিয়েশনসহ কানাডা এবং চীনের মধ্যে বাণিজ্য প্রচার করে এমন কয়েকটি সংস্থার সাথে যুক্ত। চায়না ওভারসিজ এসোসিয়েশনের পরিচালকও তিনি। ২০১৪ সালে চীনের ১২তম জাতীয় গণকংগ্রেসের সময়, তিনি দেশের বাইরে থেকে চীনের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন।

ওয়েই এবং তার সংগঠনগুলো বেশকিছু অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, যেখানে অতিথি হিসেবে প্রায়ই কানাডার কিছু বিখ্যাত রাজনীতিবিদেরা উপস্থিত থাকতেন। ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে, ওয়েই অটওয়ার পার্লামেন্ট হিলে চীনা নববর্ষ উদযাপনের আয়োজন করেছিলেন, যেখানে স্বতন্ত্র এমপি গেং টান এবং জন ম্যাককালাম, রক্ষণশীল সিনেটর ভিক্টর ওহ, তৎকালীন অভিবাসন মন্ত্রী আহমেদ হুসেন এবং অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

গেং টান প্রথম চীনা কানাডিয়ান যিনি চীনের মূল ভূখণ্ডে জন্মগ্রহণ করে ২০১৫ সালে হাউস অব কমনসে নির্বাচিত হন। এর আগে তিনি চীন-কানাডা মৈত্রী সংস্থার টরন্টোর ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন, যেখানে স্থায়ী সম্মানিত চেয়ারম্যান ছিলেন ওয়েই। ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে, বেইজিং এ কানাডিয়ান দূতাবাসের একজন শীর্ষ কর্মকর্তার কাছে চিঠি পৌঁছাতে গেংয়ের উপর দায়িত্ব দেওয়া হয়। তিনি ব্যক্তিগতভাবে চীনা-কানাডিয়ান ব্যবসায়ী, এডওয়ার্ড গেং এর পক্ষ নিয়ে চীনা কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলেন। তখন এডওয়ার্ড গেং এর উপর বিভিন্ন প্রতারণামূলক অভিযোগ ছিল।

জন ম্যাককালাম, একজন লিবারেল এমপি এবং ২০১৭ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ওয়েইয়ের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তিনি নিয়মিত উপস্থিত ছিলেন। ২০১৭ সালে তিনি চীনা নববর্ষের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। তাছাড়াও ২০১৫ সালের অক্টোবরে, টরন্টোতে ফুজিয়ানিক এর অনুষ্ঠানেও তিনি যোগ দেন।

২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে চীনা নববর্ষ উদযাপনে অন্য একজন অংশগ্রহণকারী ছিলেন রক্ষণশীল সিনেটর ভিক্টর ওহ। ২০২০ সালে, একজন সিনেটের কর্মকর্তা দেখতে পান যে সিনেটর ওহ, ২০১৭ সালে চীনে ভ্রমণের জন্য সমস্ত খরচের অর্থ গ্রহণ করার সময় চারবার উচ্চকক্ষের নীতিশাস্ত্র লঙ্ঘন করেছেন।

মাইকেল চ্যান, অন্টারিওর একজন মন্ত্রী। তিনি ২০০৭ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত, এমপিপি এবং মার্খামের বর্তমান ডেপুটি মেয়র এবং আঞ্চলিক কাউন্সিলর-ইলেক্ট, ২০১৫ সালে কানাডিয়ান সিকিউরিটি ইন্টেলিজেন্স সার্ভিস এর দ্বারা চীনা সরকারের অধীনে কাজ করেছিলেন। ২০১৫ সালের অক্টোবরে, চীনা সিসিপি এর শাসনের ৬৬ তম বার্ষিকী উদযাপনে মাইকেল চ্যান এবং ওয়েইকে একটি অনুষ্ঠানে একসাথে যোগ দিতে দেখা যায়। সিনেটর ভিক্টর ওহ এবং হান ডংও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

২০১৯ সালের এপ্রিলে, ওয়েই এবং রক্ষণশীল এমপিপি ভিনসেন্ট কে, অন্টারিওতে কানাডার তিব্বত অ্যাসোসিয়েশনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন। কানাডার তিব্বত অ্যাসোসিয়েশনকে চীনের কমিউনিস্ট পার্টি (সিসিপি)-এর একটি ফ্রন্ট বলা হয় কারণ এটি প্রকাশ্যে বেইজিংয়ের তিব্বতের নিয়ন্ত্রণকে সমর্থন করে। একই বছরের আগস্টে, ওয়েই এবং মাইকেল চ্যান হংকং-এ গণতন্ত্রপন্থী বিক্ষোভের নিন্দা সমর্থনে একটি সমাবেশ করেন এবং হংকং পুলিশের প্রতি তাদের সমর্থন প্রকাশ করেন।

পরবর্তীতে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে, ওয়েই এবং সিনেটর ভিক্টর ওহ কানাডা টরন্টো ফুকিং বিজনেস অ্যাসোসিয়েশন (সিটিএফবিএ) দ্বারা আয়োজিত নববর্ষের অনুষ্ঠানে যোগ দেন। ওয়েই হলেন এর সম্মানিত চেয়ারম্যান। ২০১৯ সালের অক্টোবরে, সিনেটর ভিক্টর ওহ এমপি গেং টানের সাথে সিটিএফবিএ-এর প্রথম পরিচালনা পর্ষদের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানেও যোগ দিয়েছিলেন।

সুতরাং এটা স্পষ্ট যে চীন ওয়েই চেঙ্গির মাধ্যমে কানাডার রাজনীতিতে প্রভাব বিস্তার করার চেষ্টা করছে। তবে সংশ্লিষ্ট সাংসদ এবং ওয়েই চেঙ্গি তাদের বিরুদ্ধে আরোপিত সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

একটি দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করা সেই রাষ্ট্রের সার্বভৌমত্বকে ক্ষুণ্ন করার শামিল। কানাডিয়ান সরকারকে অবশ্যই এই দিকে মনোযোগ দিতে হবে। সেইসাথে চীনকে কানাডার রাজনীতিতে আরও প্রভাব বিস্তার করা থেকে বিরত রাখতে, কানাডার সরকারকে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

আই.কে.জে/

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ