Sunday, May 9, 2021
Sunday, May 9, 2021
danish
Home Latest News করোনার চিকিৎসা : বিশেষ প্রণোদনা পাচ্ছেন ১,৪৭৪ চিকিৎসকসহ ২,৮৬১ স্বাস্থ্যকর্মী

করোনার চিকিৎসা : বিশেষ প্রণোদনা পাচ্ছেন ১,৪৭৪ চিকিৎসকসহ ২,৮৬১ স্বাস্থ্যকর্মী

নিজস্ব প্রতিবেদক, সুখবর ডটকম: করোনার কঠিন এই পরিস্থিতিতে যেখানে আপনজনের দেখা পাওয়া যায়না, সেখানে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কোভিড রোগীদের নিয়মিত সেবা দিয়ে যাচ্ছেন চিকিৎসক, নার্স এবং হাসপাতালের অন্যান্য স্টাফরা। তাই ১৪টি কোভিড হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য দুই মাসের বিশেষ প্রণোদনা বরাদ্দ দিয়েছে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের বাজেট শাখা।

এসব হাসপাতালের ১,৪৭৪ জন চিকিৎসক, ৪০৬ জন নার্স ও ৯৮১ জন অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মী ১৫ কোটি ২৭ লাখ ৬৪ হাজার ৯০২ টাকা পাবেন। শনিবার (১৭ এপ্রিল) স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানা গেছে।

এর আগে ফেব্রুয়ারি ও মার্চ মাসে দুই দফায় চিকিৎসাসেবায় নিয়োজিত মোট ৪,২৩২ ব্যক্তির সম্মানী বাবদ ২৪ কোটি ৬০ লাখ টাকা ছাড় করে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ।

“২৮টি হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের নামে অর্থ ছাড় করেছে অর্থ বিভাগ। তাদের মধ্যে চিকিৎসক ১,৮৮০ জন, নার্স ৮৪৫ জন এবং স্বাস্থ্যকর্মী ১,৫০৭ জন।”

“করোনা রোগীদের সেবায় সরাসরি নিয়োজিত চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীসহ মাঠ প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, সশস্ত্র বাহিনী এবং প্রত্যক্ষভাবে নিয়োজিত প্রজাতন্ত্রের অন্য কর্মচারীদের ক্ষতিপূরণ দিতে গত বছরের ২৩ এপ্রিল একটি পরিপত্র জারি করে অর্থ বিভাগ। সেটি অনুসরণ করেই প্রণোদনা ও ক্ষতিপূরণ দেয়া হচ্ছে।”

কোন হাসপাতালে কতজন?

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, ১৪টি হাসপাতালের মধ্যে শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের ১৭২ জন চিকিৎসক, ৩৩৯ নার্স ও ৫ জন স্বাস্থ্যকর্মী; পিরোজপুর জেলা সদর হাসপাতালের ২০ জন চিকিৎসক, ৩৫ জন নার্স ও ৬ জন স্বাস্থ্যকর্মী; মৌলভীবাজার জেলা সদর হাসপাতালের ৫৪ চিকিৎসক ও ২৮ জন স্বাস্থ্যকর্মী; মিরপুরের মাতৃ ও শিশুস্বাস্থ্য প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানের ৯৪ চিকিৎসক ও ৩৪ স্বাস্থ্যকর্মী; সিরাজগঞ্জের বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুনন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের ৬০ জন চিকিৎসক ও ১৬ জন স্বাস্থ্যকর্মী; দিনাজপুরের আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজের ১০৮ চিকিৎসক ও ৭৪ স্বাস্থ্যকর্মী; রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১৯৭ জন চিকিৎসক ও ২০৫ জন স্বাস্থ্যকর্মী; কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ২৬ জন চিকিৎসক; বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের ১৬৫ চিকিৎসক ও ৩১০ স্বাস্থ্যকর্মী; রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ২৮০ জন চিকিৎসক ও ১৪১ জন স্বাস্থ্যকর্মী; সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ২০৯ চিকিৎসক ও ১৩৯ জন স্বাস্থ্যকর্মী; বরিশাল জেনারেল হাসপাতালের ৩ জন স্বাস্থ্যকর্মী; শহীদ শামসুদ্দিন আহমেদ হাসপাতালের ৬৬ জন চিকিৎসক, ১৩ জন স্বাস্থ্যকর্মী এবং সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালের ২৩ চিকিৎসক, ৩২ জন নার্স ও ৭ জন স্বাস্থ্যকর্মীর নামে প্রণোদনা বরাদ্দ হয়েছে।

বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) মহাসচিব ডা. মো. ইহতেশামুল হক চৌধুরী বলেন, “করোনা মহামারীর পর থেকে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। ডা. মঈনসহ প্রাণ দিয়েছেন শতাধিক চিকিৎসক। চিকিৎসক সমাজ ভয়হীন হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন, তা পরবর্তী প্রজন্ম শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে। তাঁদের প্রণোদনা দেওয়ার বিষয়টি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিজে থেকেই প্রথম বলেছিলেন। তিনি চিকিৎসকদের মানসিক বল জোগাতেই এ উদ্যোগ নিয়েছেন, তাঁদেরকে এই বার্তা দেওয়ার জন্য যে, সরকার তাদের পাশে আছে।”

বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) তথ্য অনুযায়ী, এ পর্যন্ত করোনায় দেশে ১৪৬ জন চিকিৎসক মারা গেছেন। এর মধ্যে গত বছরের ১৫ এপ্রিল মারা যান সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. মঈন উদ্দিন আহমদ।

গত ১৬ এপ্রিল রাতে প্রাণ হারান ঢাকা মেডিকেল কলেজ ৩২তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ডা. মোহাম্মদ শরীফুল আহসান। এ ছাড়াও ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৯১০ জন চিকিৎসক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments