spot_img
28 C
Dhaka
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

১৪ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

৩০শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

করোনাতেও বেড়েছে রাজস্ব আদায় | গতি ফিরছে অর্থনীতিতে

- Advertisement -

নিজস্ব প্রতিবেদক, সুখবর ডটকম: করোনা মহামারীর মধ্যেও দেশে বেড়েছে রাজস্ব আদায়। চলতি অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে ১৪ হাজার ৭৫৬ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় করেছিল জাতীয় রাজস্ব বোর্ড-এনবিআর। পরের মাস আগস্টে তা বেড়ে ১৫ হাজার ৭৫৬ কোটি টাকা হয়েছে। সর্বশেষ সেপ্টেম্বর মাসে তা আরও বেড়ে ২০ হাজার কোটি টাকায় ঠেকেছে।

সব মিলিয়ে চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) আদায় হয়েছে ৪৯ হাজার ৯৮৯ কোটি ৭২ লাখ টাকা। গত বছরের এই তিন মাসে আদায় হয়েছিল ৪৮ হাজার ১৭ কোটি ২০ লাখ টাকা।

এ হিসাবে জুলাই-সেপ্টেম্বর সময়ে গত বছরের একই সময়ের চেয়ে প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা বা ৪ দশমিক ১১ শতাংশ বেশি রাজস্ব আদায় হয়েছে।

মার্চে দেশে কোভিড-১৯ মহামারীর প্রাদুর্ভাব শুরুর দিকে রাজস্ব আদায়ে ধস নেমেছিল। তখন রাজস্ব আদায় প্রায় তলানিতে ঠেকেছিল। ওই সময়ে প্রায় সব কিছু বন্ধ থাকলেও চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম চালু রাখা হয়। তবু রাজস্ব আদায় খুব বেশি হয়নি।

গত ২০১৯-২০ অর্থবছরের শেষ তিন মাসে (এপ্রিল-জুন) আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ৫০ শতাংশের মতো রাজস্ব আদায় কমে যায়।

পরের তিন মাসে অর্থাৎ চলতি অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে সেই অবস্থা থেকে উঠে দাঁড়িয়েছে।

সর্বশেষ তিন মাসের রাজস্ব আদায় পরিস্থিতি অর্থনীতি উঠে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিচ্ছে বলে মনে করছেন অর্থনীতির গবেষক বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (পিআরআই) নির্বাহী পরিচালক আহসান এইচ মনসুর।

তিনি বলেন, অর্থনীতির অন্যতম প্রধান সূচক হচ্ছে রাজস্ব আদায়। গত তিন মাসে আগের চেয়ে রাজস্ব আদায় বেড়েছে। এটা ভালো লক্ষণ। করোনাভাইরাসের প্রভাব কাটিয়ে অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে।

তবে এতে আত্মতুষ্টিতে না ভুগে রাজস্ব আদায়ের গতি আরও বাড়াতে এনবিআরের ব্যাপক সংস্কারের পরামর্শ দিয়ে আহসান মনসুর বলেন, গত তিন মাসে ভ্যাট আদায়ে প্রবৃদ্ধি হয়েছে মাত্র ১ দশমিক ১৯ শতাংশ। এর মানে, অভ্যন্তরীণ অর্থনীতি চাঙা হয়নি। অভ্যন্তরীণ অর্থনীতি চাঙা হতে আরও পাঁচ-ছয় মাস লাগতে পারে। তবে অর্থনীতির ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে।

মূলত গত এপ্রিল-জুন সময়ে আমদানি-রপ্তানিতে গতি ছিল না; দোকানপাট বন্ধ ছিল। অর্থনীতি প্রায় থমকে দাঁড়ায়। এসব কারণে শুল্ক-কর আদায় কমে যায়।

পরের তিন মাসে দোকানপাট খুলতে শুরু করে। আমদানি-রপ্তানিও বাড়তে থাকে। ফলে রাজস্ব আদায়ের পরিস্থিতিও বদলে যেতে থাকে। ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে অর্থাৎ ২০১৯ সালের জুলাই-সেপ্টেম্বর সময়ে যত রাজস্ব আদায় হয়েছিল, ২০২০ সালের জুলাই-সেপ্টেম্বর সময়ে তার চেয়ে প্রায় এক হাজার ৯৭২ কোটি ৫২ লাখ টাকা বেশি রাজস্ব আদায় হয়েছে।

এই তিন মাসে নতুন বিনিয়োগ কিংবা নতুন ব্যবসা চালু হয়নি বললেই চলে। তবু আগের বছরের চেয়ে বেশি রাজস্ব আদায় হওয়ার মানে, অর্থনীতি উঠে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিচ্ছে। বেচাকেনা, ব্যবসা-বাণিজ্য সচল হচ্ছে।

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ