spot_img
29 C
Dhaka
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ইং, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯বাংলা

কক্সবাজারে একদিনে বাজারে উঠল ১৫ হাজার বড় ইলিশ

- Advertisement -

নিজস্ব প্রতিবেদক, সুখবর বাংলা: কক্সবাজারে ধরা পড়েছে রেকর্ড পরিমাণ ইলিশ মাছ। এক একটি ইলিশের ওজন ২ কেজি বা ৩ কেজি, সংখ্যার বিচারে ১৫ হাজারের মতো মাছ। মাছগুলো মজুত করে রাখা হয়েছে কক্সবাজার মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রের পন্টুনে। এসব বড় বড় ইলিশ জেলেদের কাছ থেকে কিনেছেন মৎস্য ব্যবসায়ীরা।

মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) বেলা ১২টার মধ্যে ১৫ হাজারের বেশি ২ বা ৩ কেজি ওজনের বড় বড় ইলিশ পন্টুনে রয়েছে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ব্যবসায়ীরা। আর বড় বড় এসব ইলিশ দ্রুত প্যাকেটজাত করে পাঠানো হচ্ছে ঢাকাসহ সারা দেশে।

মঙ্গলবার সকালে মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, অবতরণ কেন্দ্রের ৩টি পন্টুন রয়েছে। প্রতিটি পন্টুন ইলিশে সয়লাব। আর পন্টুনে ইলিশ রাখার স্থান না পেয়ে খোলা মাঠে স্তূপ করে রাখা হচ্ছে ইলিশ। তবে পন্টুন বা খোলা মাঠে রাখা বড় আকারের ইলিশগুলো দিকে নজর বেশি ব্যবসায়ীদের। জেলেদের কাছ থেকে দ্রুত দর-দাম করে এসব ইলিশ কিনে নিচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। আর এসব ইলিশগুলো পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে বক্সে ভরে প্যাকেটজাত করছেন শ্রমিকরা। প্যাকেটজাত করেই তোলা হচ্ছে ট্রাকে। ট্রাক ভর্তি হওয়ার পরপরই পাঠিয়ে দেয়া হচ্ছে ঢাকাসহ সারা দেশে।

এফ. বি. আল্লাহর দান ট্রলারের মাঝি ইলিয়াছ বলেন, সাগরে ৪ দিন মাছ শিকার শেষে ৩ হাজার ইলিশ নিয়ে দ্রুত কক্সবাজার মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে ফিরেছি। ৩ হাজার ইলিশের মাঝে ২ হাজার পেয়েছি ২ থেকে ৩ কেজি ওজনের বড় বড় ইলিশ। আর এসব ইলিশ পন্টুনে রাখার আগেই ট্রলার থেকে মৎস্য ব্যবসায়ীরা কিনে নিচ্ছেন। ২ হাজার ইলিশ দুই ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করেছি ২৮ লাখ টাকায়। নিষেধাজ্ঞার কারণে ইলিশ বড় আকারে হয়েছে, তাই ভালো দাম পাচ্ছি।

আরেকটি ট্রলারের জেলে রফিক বলেন, আমার দুই হাতে দুইটা ইলিশ। এ দুইটা ইলিশের ওজন ৫ কেজির কাছাকাছি। বড় আকারের ইলিশগুলো ভালো দাম পেয়ে খুবই খুশি লাগছে।

পন্টুনে অবস্থান করা মৎস্য ব্যবসায়ী আবুল হোসেন বলেন, ২ থেকে ৩ কেজি ওজনের ৭ মণ ইলিশ জেলেদের কাছ থেকে কিনে নিয়েছি ১ লাখ ২৫ হাজার টাকায়। এখন এসব ইলিশ বিক্রি করছি কেজি প্রতি ১ হাজার ১৫০ টাকায়।

আরেক মৎস্য ব্যবসায়ী সেলিম বলেন, বড় আকারের ১ হাজার ইলিশ কিনেছি ১৪ লাখ টাকায়। পরে আরেক ব্যবসায়ীকে ১৫ লাখ টাকায় নগদে বিক্রি করে দিয়েছি।

১৫ লাখ টাকায় ১ হাজার বড় আকারের ইলিশ কেনা ব্যবসায়ী শাহ আলম বলেন, ঢাকায় বড় আকারের ইলিশগুলোর চাহিদা রয়েছে। তাই এসব ইলিশ কিনে নিয়ে দ্রুত প্যাকেটজাত করে ঢাকায় সরবরাহ করছি। কারণ এখন ভালো দাম পাব।

ট্রলার মালিক ও মৎস্য ব্যবসায়ী সোহেল রানা বলেন, মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে ১৫ হাজারের বেশি বড় আকারের ইলিশ অবতরণ হয়েছে। এসব ইলিশ দ্রুত কেনার পর সারা দেশে সরবরাহ করা হচ্ছে।

কক্সবাজার অবতরণ কেন্দ্র মৎস্য ব্যবসায়ী ঐক্য সমবায় সমিতির সভাপতি জয়নাল আবেদীন বলেন, নিষেধাজ্ঞার পর সাগরে বড় আকারে ইলিশ ধরা পড়ছে। যার কারণে জেলেরা যেমন খুশি, ঠিক তেমনি ব্যবসায়ীরা খুশি। তবে এসব ইলিশ ওঠানামা ও রাখার জন্য পর্যাপ্ত জেটি এবং পন্টুন নেই। তাই দ্রুত কক্সবাজার মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে আরও একটি জেটি এবং পন্টুন নির্মাণের দাবি জানাচ্ছি।

আরো পড়ুন:

আগস্টে শিশুদের টিকাদান শুরু

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ