spot_img
27 C
Dhaka

২৯শে নভেম্বর, ২০২২ইং, ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

সর্বশেষ
***যৌনপল্লীর গল্প নিয়ে পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমা ‘রঙবাজার’***কেন ক্ষমা চাইলেন কিংবদন্তি গায়ক বব ডিলান***বিলুপ্তপ্রায় কুমিরের সন্ধান, পুনর্ভবা নদীর তীরে মানুষের ভিড়***সোহরাওয়ার্দী উদ্যান নয়, নয়াপল্টনেই হবে সমাবেশ : বিএনপি***পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসী দল টিটিপি ইসলামাবাদের গলার কাঁটা?***পাকিস্তান-আফগানিস্তানের সম্পর্ক কি শেষের পথে?***শীত মৌসুম, তুষার এবং বরফকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে রাশিয়া : ন্যাটো***নানা সুবিধাসহ বাংলাদেশ ফাইন্যান্সে চাকরির সুযোগ***বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার সূচি ও আসনবিন্যাস প্রকাশ***পৃথিবীর কিছু অবিশ্বাস্য সৃষ্টি, যা আপনার কাছে খুবই আশ্চর্যজনক লাগবে

আর্জেন্টিনাকে রুখে দেয়া কে এই সৌদি গোলরক্ষক

- Advertisement -

ক্রীড়া ডেস্ক, সুখবর ডটকম: লিওনেল মেসিদের সামনে যেন স্রেফ হিমালয় পাহাড়ের মত দৃঢ়তা নিয়ে দাঁড়িয়েছিলেন সৌদি আরবের গোলরক্ষক মোহাম্মদ আল ওয়াইজ। সৌদি আরবের ডিফেন্স ভেঙে যতগুলো আক্রমণই গোলমুখে গিয়েছে, সবগুলোই রুখে দিয়েছেন তিনি। এর মধ্যে মোট ৭ বার তিনি দলকে বাঁচিয়েছেন, যার মধ্যে নিশ্চিত ৫টি গোল হতে পারতো।

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে গোলপোস্টের নিচে ফুল ফুটিয়ে সৌদি আরবের জয়ে অন্যতম নায়ক হয়েছেন এই গোলরক্ষক। ৩১ বছর  বয়সী আল-ওয়াইস ক্যারিয়ারের দীর্ঘ সময় কাটিয়েছেন সৌদি আরবের দুই ক্লাব আল-শাবাব ও আল-আহলিতে খেলে। কিছুদিন আগে যোগ দিয়েছেন সৌদি আরবের আরেক ক্লাব আল-হেলালে। ৬ ফুট ২ ইঞ্চি উচ্চতার এই গোলরক্ষক দেশের হয়ে এখন পর্যন্ত খেলেছেন ৪৩ ম্যাচ, ছিলেন রাশিয়ায় ২০১৮ বিশ্বকাপের দলেও। তবে জাতীয় দলের হয়ে সম্ভবত ক্যারিয়ারের সবচেয়ে স্মরণীয় ম্যাচটা খেলেছেন আজ।

লুসাইল স্টেডিয়ামে ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে ওয়াইস আসল জাদু দেখিয়েছেন। তবে এর আগে প্রথমার্ধের শুরুতে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন আজকের দিনটি তাঁর হতে যাচ্ছে। ম্যাচের দুই মিনিটে লিওনেল মেসির শট অবিশ্বাস্য দক্ষতায় ঠেকান সৌদি গোলরক্ষক।

এরপর ম্যাচের ১০ মিনিটের মাথায় রীতিমতো লিওনেল মেসির সঙ্গে চোখে চোখ রেখে পেনাল্টি ঠেকাতে দাঁড়িয়েছিলেন ওয়াইস। লিয়ান্দ্রো পারেদেসকে ডি-বক্সের ভেতর ফেলে শুরুতেই আর্জেন্টিনাকে পেনাল্টি উপহার দেয় সৌদি আরব। পেনাল্টি নিতে এগিয়ে আসেন মেসি।

আর তখনই আঙুল দিয়ে ইশারা করে মেসিকে পেনাল্টি কোথায় নেবেন তা দেখিয়ে দেন সৌদি গোলরক্ষক। মেসির সঙ্গে ‘মাইন্ড গেম’ খেলতে গিয়ে ওয়াইস ডান দিকে শট নেওয়ার জন্য ইশারা করেন। মেসি অবশ্য কথা শুনেছেনও বটে। আর্জেন্টাইন তারকা শটটা ডান দিকেই নিয়েছিলেন। তবে আল ওয়াইস নিজেই ঝাঁপটা দেন উল্টো দিকে। সে যাত্রায় বোকা বনে গেলেও, মেসি এমনকি ওয়াইস নিজেও জানতেন না এরপর কী ঘটতে যাচ্ছে।

প্রথমার্ধে আর্জেন্টিনার তিনটি গোল অফসাইডের ফাঁদে পড়ে নষ্ট হওয়ার দ্বিতীয়ার্ধে দেখা গেছে সৌদি ‘শো’। আর লুসাইলে লাতিন জায়ান্টদের স্তব্ধ করে আরব বসন্ত নামানোর অন্যতম রূপকার ছিলেন গোলরক্ষক ওয়াইসও। ম্যাচের একেবারে শেষ মুহূর্তে হুলিয়ান আলভারেজর সেই প্রচেষ্টার কথায় ধরা যাক। আলভারেজ দারুণ একটি হেড নিয়েছিলেন, তবে দুর্দান্ত ডাইভে সেই প্রচেষ্টা রুখে দিয়ে আর্জেন্টিনার অঘটনের হার নিশ্চিত করেন এই গোলরক্ষক।

গোল বাঁচাতে এদিন ওয়াইস এতটাই মরিয়া ছিলেন যে অতিরিক্ত সময়ে নিজ দলের ডিফেন্ডার ইয়াসের আর-শাহরানিকেই হাঁটু দিয়ে আঘাত করে বসেন ওয়াইস। সতীর্থকে দুর্ঘটনাবশত আঘাত করার পরও হৃদয়স্পর্শী একটি ঘটনারও জন্ম দেন ওয়াইস। সে সময় হতাশায় তাঁকে মাথা নিচু করে উপুড় হয়ে থাকতে দেখা যায়।

তবে এদিন সবকিছু ছাপিয়ে গেছে তাঁর অতিমানবীয় কিছু সেভ। গোলবারের নিচে চীনের প্রাচীর হয়ে ওঠা ওয়াইস নিজের আত্মা, শরীর—সবকিছুই যেন সঁপে দিয়েছিলেন। বাজপাখির দক্ষতায় এদিন নিরাশ করেছেন নিকোলাস তালিয়াফিকো, মেসি এবং আলভারেজের একের পর এক প্রচেষ্টাকে।

অতিরিক্ত সময়ে আলভারেজকে নিরাশ করার পর ৮৪ মিনিটে ঠেকান দি মারিয়ার ক্রস থেকে আসা মেসির হেড। আর ৬৩ মিনিটে  হতাশ করেন ওয়াইস তালিয়াফিকো। দ্বিতীয়ার্ধে বলকে পোস্ট পেরোতে না দিতে যা কিছু করা দরকার, সম্ভাব্য সবকিছুই করেছেন এই আল হিলাল গোলরক্ষক। সঙ্গে বিশ্বকাপ ইতিহাসের সবচেয়ে বড় অঘটনগুলোর একটির অন্যতম নায়কও হয়েছেন ওয়াইস।

এম/

আরো পড়ুন:

আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে মরুর বুকে নতুন গল্প লিখলো সৌদি আরব

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ