spot_img
20 C
Dhaka

৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২২ইং, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

আফগানিস্তান-পাকিস্তান সড়ক অবরোধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে উপজাতীয় পরিষদ জিরগা

- Advertisement -

ডেস্ক রিপোর্ট, সুখবর ডটকম: আফগানিস্তানের উপজাতীয় পরিষদ জিরগা, সমস্ত উপজাতি ও জনগণের সম্মতি ছাড়াই ফেডারেল এডমিনিস্টার্ড ট্রাইবাল এরিয়াস (এফএটিএ) কে খাইবার পাখতুনখোয়ার সাথে একীভূত করার প্রতিবাদে জামরুদ বাইপাস রাস্তায় আফগানিস্তান-পাকিস্তান সড়ক অবরোধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

খাইবার পাখতুনখোয়ার সাথে এফএটিএ এর একীভূতকরণের প্রতিবাদে ইতিমধ্যেই জামরুদ সড়কের কাছে একটি প্রতিবাদ সম্মেলন চলছে।

জিরগার প্রবীণ নেতা, আফরসায়াব আফ্রিদি, শের বাহাদুর আফ্রিদি এবং অন্যান্যরা বলেছেন যে এই একীভূতকরণ এই অঞ্চলের প্রাকৃতিক সম্পদগুলো ধ্বংস করার একটি ষড়যন্ত্র, যা অগ্রহণযোগ্য।

তাদের দাবি অবৈধ কর প্রত্যাহার করতে হবে, জাতীয় পরিষদ এবং সেনেটের আসন সংখ্যা পুনঃস্থাপন করতে হবে এবং উপজাতীয় সংস্কৃতি এবং মূল্যবোধ পুনরুদ্ধার করতে হবে। অন্যথায়, এফএটিএ কে একটি পৃথক প্রদেশ করা উচিত।

খাইবার পাখতুনখোয়ার সাথে একীভূত হওয়ার পর এফএটিএ এর জনগণ নানা সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। একীভূত হওয়ার তিন বছর পরেও আদিবাসীরা সরকারের এ সিদ্ধান্তে সন্তুষ্ট নয়।

অনেক উপজাতি তাদের দাবি পূরণের জন্য বিচার বিভাগের থেকেও জিরগাকে পছন্দ করে। তারা সরকারের এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে নিজ নিজ স্থান থেকে প্রতিবাদ জানাচ্ছে। তাদের দাবি হলো সরকারের এ সিদ্ধান্ত সম্পূর্ণ ভুল, যে ভুলের মাশুল তাদের দিতে হচ্ছে।

একীভূতকরণের আগে এফএটিএ এর জনগণকে সরকার নানাবিধ প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, যা এখন তারা ভুলে গেছে।

এফএটিএ এর জনগণের দাবি, সরকার তার সমস্ত প্রতিশ্রুতি ভুলে গিয়েছে।

শিক্ষিত এবং রাজনৈতিকভাবে সক্রিয় লোকেরা ভেবেছিলেন যে দুই অঞ্চলের একীভূতকরণ তাদেরকেও এক করে দিবে কিন্তু আপাতত তা ভুল প্রমাণিত হয়েছে।

২১ মে, ২০১৮ সালে পাকিস্তান ২৫তম সংশোধনীর মাধ্যমে এফএটিএ কে খাইবার পাখতুনখোয়ার সাথে একীভূত করে। কিন্তু আপাতদৃষ্টিতে তা দেশের উন্নয়নে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সরকার আদিবাসীদের দেওয়া তার প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে পারেনি। এ বিষয় নিয়ে সবাই খুব হতাশ।

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ