spot_img
31 C
Dhaka
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

১লা অক্টোবর, ২০২২ইং, ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯বাংলা

আফগানদের ২১৩ রানের লক্ষ্য দিলো ভারত

- Advertisement -

ক্রীড়া ডেস্ক, সুখবর বাংলা: অবশেষে সেঞ্চুরির দেখা মিলল বিরাট কোহলির ব্যাটে। ১২টি চার ও ৬ ছক্কায় মাত্র ৬১ বলে বিরাট কোহলির করা অপরাজিত ১২২ রানের ইনিংসে ভর করে সুপার ফোরের শেষ ম্যাচে ২ উইকেট হারিয়ে ২১২ রান সংগ্রহ করেছে ভারত। জিততে আফগানিস্তানকে করতে হবে ২১৩ রান।

এদিন শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিলেন কোহলি। নিয়মিত অধিনায়ক রোহিত শর্মার বিশ্রামে তাকে নামানো হয় ওপেনার হিসেবে। আর তাতেই করলেন বাজিমাত। তিন ফরম্যাট মিলিয়ে ৭১তম সেঞ্চুরির দেখা পেয়ে গেলেন। ৬১ বল খেলে ১২২ রানের ঝড়ো একটা ইনিংস খেললেন। যা সাজিয়েছেন ১২টি চার ও ৬টি ছক্কায়।

দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত সূচনা এনে দেন লোকেশ রাহুল এবং বিরাট কোহলি। আফগানদের পেয়ে দারুণভাবে জ্বলে উঠলেন বিরাট কোহলি এবং লোকেশ রাহুল। তাদের ব্যাটে বড় স্কোরের পথেই এগিয়ে যাচ্ছিল ভারত।

শুধু তাই নয়, টানা তৃতীয় হাফ সেঞ্চুরি করার পর অবশেষে আজকের ইনিংসটিকে সেঞ্চুরিতে রূপান্তর করলেন কোহলি। এ নিয়ে চলতি টুর্নামেন্টে তৃতীয়বার ৫০ উর্ধ্ব রান বেরিয়ে আসে কোহলির ব্যাট থেকে। হংকংয়ের বিপক্ষে ৫৯ রান করে অপরাজিত থাকেন। পাকিস্তানের বিপক্ষে তিনি করেন ৬০ রান।

উদ্বোধনী জুটিতে ১১৯ রান তুলেছেন কোহলি এবং লোকেশ রাহুল। ৪১ বলে ৬২ রান করে লোকেশ রাহুল। ৬টি বাউন্ডারি এবং ২টি ছক্কার মার মারেন তিনি। সূর্যকুমার যাদব মাঠে নেমে একটিমাত্র ছক্কা মেরেই বোল্ড হয়ে যান ফরিদ আহমেদের বলে।

এরপর আর কোনো উইকেট পড়লো না। রিশাভ পান্তকে নিয়ে ৮৭ রানের জুটি গড়েন কোহলি। এর মধ্যে ২০ রান কেবল পান্তের। বাকিগুলো সব কোহলির। ৬১ বলে ১২২ রানে অপরাজিত থাকেন কোহলি। ১২টি বাউন্ডারির সঙ্গে ৬টি ছক্কার মারও মারেন তিনি। ১৬ বলে ২০ রানে অপরাজিত থাকেন রিশাভ পান্ত।

আরও পড়ুন:

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ: প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকা

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ