spot_img
29 C
Dhaka

২৭শে নভেম্বর, ২০২২ইং, ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯বাংলা

অ্যাভাটার চলচ্চিত্রের রহস্যঘেরা সেই প্যান্ডোরার পাহাড়

- Advertisement -

মাহবুব মারুফ, সুখবর বাংলা: ‘অ্যাভাটার’ দ্য ওয়ে অব ওয়াটার; হলো জেমস ক্যামেরন পরিচালিত, প্রযোজিত, সম্পাদিত ও রচিত এবং টুয়েন্টিথ সেঞ্চুরি স্টুডিওস প্রযোজিত আসন্ন মার্কিন কল্পবিজ্ঞানভিত্তিক চলচ্চিত্র। এটি ‘অ্যাভাটার’ চলচ্চিত্রের পর অ্যাভাটার ফ্রাঞ্চাইজির দ্বিতীয় চলচ্চিত্র। ২০০৯ সালে ডিসেম্বরে মুক্তি পাওয়া হলিউড ছবি ‘অ্যাভাটার’-এর সিক্যুয়ালের অপেক্ষায় এখনও দিন গুনছেন পৃথিবীর অসংখ্য মানুষ।

অ্যাভাটারের এক যুগ পর এই সিনেমার সিকুয়েল নিয়ে আসছেন জেমস ক্যামেরন; আর এর গল্প আরও আবেগময় বলে জানালেন তিনি। ‘অ্যাভেটার: দ্য ওয়ে অফ ওয়াটার’ আগামী ডিসেম্বরে মুক্তি পেতে যাচ্ছে। একে বলা হচ্ছে অ্যাভাটার-২, এরপর আরও কয়েকটি সিকুয়েলের পরিকল্পনাও চলছে।

বক্স অফিসের বিচারে হলিউডের বিখ্যাত পরিচালক জেমস ক্যামেরনের সবচেয়ে সফলতম ছবি এটি। সফলতম এই ছবিটিতে দেখানো হয়েছে অ্যানিমেশনের দারুণ সব চমক। এছাড়া ছবির বেশ কয়েকটি দৃশ্যে স্তম্ভের মতো লম্বা লম্বা রহস্যঘেরা পাহাড় চোখ এড়ায়নি দর্শকদের। ছবিতে এগুলোকে বলা হয়েছিলো ‘প্যান্ডোরার পাহাড়’।

প্যান্ডোরার পাহাড়

এমন পাহাড়ে ঘেরা বিচিত্র অঞ্চল, এমন স্তম্ভের মতো লম্বা লম্বা অদ্ভূত দর্শন পাহাড় রয়েছে পৃথিবীর বুকেই। রয়েছে এশিয়া মহাদেশেই। বাস্তবের এই প্যান্ডোরার পাহাড় রয়েছে চীনের হুনান প্রদেশের ঝাংজিয়াজিতে। চীনের ঝাংজিয়াজিতে রয়েছে তিয়ানজি পর্বতমালা। বিখ্যাত হলিউড চলচ্চিত্র পরিচালক জেমস ক্যামেরন এই তিয়ানজি পর্বতমালাকে দেখেই প্যান্ডোরার পাহাড়গুলোর নকশা তৈরি করেছিলেন তার ‘অ্যাভাটার’ ছবির জন্য। তিয়ানজি এই চীনা শব্দটির অর্থ হলো স্বর্গের পুত্র। চতুর্দশ শতকের চীনা তুজিয়া আদিবাসীর নেতা শিয়াং ডাকুনুর নামানুসারে এই পর্বতমালার নাম তিয়ানজি হয়েছে। শোনা যায়, শিয়াং ডাকুনুর ডাক নাম ছিল ‘তিয়ানজি’।

স্তম্ভের মতো দেখতে এই পাহাড়গুলির সর্বোচ্চ স্তম্ভটির উচ্চতা ১,২১২ মিটার। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ওই স্তম্ভটির উচ্চতা ৪,১৪০ মিটার। এগুলির অদ্ভূত গঠনের জন্য এগুলিকে পাহাড়ের পরিবর্তে স্তম্ভ হিসেবে উল্লেখ করেন ভূতত্ত্ববিদরা। স্তম্ভের মতো দেখতে এই পাহাড়গুলি কোয়ার্টজ স্যান্ডস্টোন দিয়ে তৈরি। বছরের পর বছর ধরে পাথরের উপর পলি জমে এখানে পাইন গাছ জন্মানোর উপযু্ক্ত পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। ফলে পাহাড়ের গায়ে পাইন গাছের জঙ্গল দেখা যায় এই অঞ্চলে।

কখন যাবেন

শীতকালে এই অঞ্চলটি পুরু বরফের চাদরে ঢেকে যায়। পর্যটকদের মনোরঞ্জনের জন্য এই অঞ্চলে ২০৮৪ মিটার দীর্ঘ ক্যাবল কারের ব্যাবস্থা রয়েছে। ‘অ্যাভাটার’ ছবি মুক্তির পর এই অঞ্চলটি দেশ-বিদেশের হাজার হাজার পর্যটকদের কাছে আকর্ষণের কেন্দ্র হয়ে ওঠে। প্রতি বছর প্রায় ৩ কোটি পর্যটক এই অঞ্চলে আসেন প্যান্ডোরার পাহাড়গুলির টানে। ভূতত্ত্ববিদদের মতে, প্রায় ৩০ কোটি বছর আগে এই জায়গাটিতে ছিল সমুদ্র।

সাধারণত, এপ্রিল থেকে অক্টোবর ঝাংজিয়াজি পর্বত দেখার সেরা সময়। এপ্রিল থেকে জুন হলো বর্ষাকাল। এসময় কুয়াশায় ঢাকা মেঘাচ্ছন্ন পরিবেশ পুরো দৃশ্যে এনে দেবে মনোমুগ্ধকর ছোঁয়া। এই সময়ের মধ্যে টিকিটের দামও কম থাকে, আবহাওয়া থাকে উপযোগী।

বাংলাদেশ থেকে যেভাবে যাবেন

বাংলাদেশ থেকে বেইজিং, সাংহাই, চেংডু বা শিয়ানে সরাসরি ফ্লাইট নেই। তবে কানেকটিং ফ্লাইটে চায়না ইস্টার্ণে করে কুনমিং হয়ে, বাংলাদেশের ইউএস বাংলা বা এয়ারলাইন্সে চায়না সাউদার্নে গুয়াংজু হয়ে, সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সে সিঙ্গাপুর হয়ে, মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সে কুয়ালালামপুর হয়ে কিংবা শ্রীলংকান এয়ারলাইন্সে কলম্বো হয়ে বেইজিং যাওয়া যায়, সেখান থেকে ঝাংজিয়াজি। সড়ক পথে এটি জাতীয় মহাসড়কের সাথে যুক্ত হলেও সরাসরি কোনও দ্রুতগতির রেল যোগাযোগ নেই। বাসে করে চাংশা থেকে আন্তঃনগর বাসগুলিতে ৫ ঘন্টা সময় লাগে ঝাংজিয়াজি পৌছুঁতে। সন্ধ্যে ৭ টা পর্যন্ত প্রতি ঘন্টায় এসব বাস ছেড়ে যায়।

এখানকার ঝাংজিয়াজি হেহুয়া বিমানবন্দর থেকে নেমে একটি ট্যাক্সি নিয়ে সোজা চলে যাবেন মূল বাস স্টেশনে। সেখান থেকে ছোট বাস আপনাকে নিয়ে যাবে মূল পার্কের প্রবেশদ্বারের কাছাকাছি ওলিংয়ুয়ান শহরে। আপনি যদি সন্ধ্যার দিকে দেরিতে পৌঁছান তবে বাসগুলি আর সেখানে যায় না, তাই একমাত্র বিকল্প হল ট্যাক্সি। ট্যাক্সিতে গেলে চালককে মিটার ব্যবহার করতে অনুরোধ করবেন এবং ভাষা জটিলতা কাটাতে মোবাইলের অনুবাদ অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করুন।

এছাড়া ঝাংজিয়াজি জাতীয় উদ্যান ভ্রমণে আরো বিস্তারিত জানতে ঘুরে আসতে পারেন এই ওয়েবসাইটেঃ https://zhangjiajietourguide.com/

হলিউড চলচিত্র ‘অ্যাভাটার’ এর বিরাট সাফল্যের পর এই স্থানের নামকরণ করা হয় অবতার পাহাড়। এটিকে পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় করে তুলতে চীন সরকার এই জাতীয় উদ্যানটিকে ঘিরে নানারকম প্রচারণা শুরু করে।

আরো পড়ুন:

মরুভূমির বুকে আধুনিক শহর

- Advertisement -

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফলো করুন

25,028FansLike
5,000FollowersFollow
12,132SubscribersSubscribe
- Advertisement -

সর্বশেষ